উপসাগর ছাড়ুন : মার্কিন বাহিনীকে রুহানির হুমকি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১৫ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সৌদি আরবে অতিরিক্ত সৈন্য মোতায়েনে যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দেয়ার পর উপসাগরীয় অঞ্চল ছাড়তে মার্কিন বাহিনীকে সতর্ক করে দিলেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তিনি বলেছেন, বিদেশি সৈন্যরা উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হুমকির মুখে ফেলেছে।

হাসান রুহানি বলেন, বিদেশি সৈন্যরা সবসময় এই অঞ্চলের জন্য বেদনাদায়ক ও রহস্যময় পরিস্থিতি তৈরি করেছে এবং তাদের অস্ত্রের প্রতিযোগিতায় ব্যবহার হওয়া উচিত নয়।

সম্প্রতি সৌদির আরবের দুটি তেল স্থাপনায় এক ডজনের বেশি ড্রোন হামলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সৌদি আরব এবং যুক্তরাষ্ট্র এই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে। তবে তেহরান সৌদিতে হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের আগামী অধিবেশনে ইরান উপসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি স্থাপনের জন্য নতুন একটি প্রস্তাব তুলে ধরবে বলে জানিয়েছেন রুহানি। ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়ার পর চলতি বছরে তেহরান-ওয়াশিংটন চরম উত্তেজনা শুরু হয়। ইরানের বিরুদ্ধে দফায় দফায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুটি তেলক্ষেত্রে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর ইরানের সঙ্গে উত্তেজনা চরমে পৌঁছায়। যদিও এই হামলার দায় স্বীকার করেছে ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি। কিন্তু সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্র এই হামলার জন্য উপসাগরীয় অঞ্চলে রিয়াদের অন্যতম চিরবৈরী প্রতিদ্বন্দ্বী ইরানকে দায়ী করছে।

টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে রুহানি বলেছেন, আমাদের এই অঞ্চল এবং মানুষের জন্য সমস্যা এবং নিরাপত্তাহীনতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিদেশি বাহিনী। এ ধরনের সৈন্য মোতায়েনের কারণে অতীতে বিপর্যয় নেমে এসেছিল বলে স্মরণ করে দিয়ে ইরানি এই প্রেসিডেন্ট মার্কিন বাহিনীকে উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

যদি তারা আন্তরিক হয়ে থাকে, তাহলে এই অঞ্চলকে অস্ত্র প্রতিযোগিতার স্থানে পরিণত করা উচিত হবে না তাদের।

সূত্র : বিবিসি।

এসআইএস/এমএস