গোপনে বিয়ে, বরের বাবাকে মলমূত্র খাওয়ালো কনের পরিবার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৪৮ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৯

কনে পক্ষের অনুপস্থিতিতে গোপনে তাদের মেয়ের সঙ্গে ছেলের বিয়ে দিয়ে বিপদে পড়েছেন বরের বাবা। তাইতো মেয়ে জামাই বিমানবাহিনীর পাইলট হওয়া সত্ত্বেও কনে পক্ষের লোকজন বরের বাবাকে বেধড়ক পিটিয়ে গায়ে প্রস্রাব করা এবং মলমূত্র খেতে বাধ্য করেছেন।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ছত্তীসগঢ় রাজ্যে। এমন অভিযোগ পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে এখনও কেউ গ্রেফতার হয়নি। তদন্তের স্বার্থে অভিযোগকারী বা অভিযুক্ত কোনও পক্ষের কারো নাম পরিচয় প্রকাশ করেনি তারা।

পুলিশ বলছে, বিমানবাহিনীর পাইলট পদে কর্মরত এক ব্যক্তির সঙ্গে স্থানীয় এক তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তিনি ডাক্তারি পড়ছিলেন। সম্প্রতি তরুণীর বাড়িতে কিছু না জানিয়েই দুজন বিয়ে করেন। কিন্তু মেয়ের বাড়ির কেউ এটা মানতে না পেরে প্রতিশোধ নিতেই এমন কাজ করেন।

মামলার এজাহারে ঘটনার বরের বাবা জানিয়েছেন, গাড়িতে করে একাই যাচ্ছিলেন। মাঝপথে কনের বাড়ির লোকজন তার গাড়ি আটকায়। জোর করে নামিয়ে শুরু করে বেধড়ক মারধর। কয়েক জন তার গায়ে প্রস্রাব করে দেয়। জোর করে মলমূত্র খাইয়ে দেয়া হয় বলেও অভিযোগে বলেছেন তিনি।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করেন, ওই সময় তাকে হুমকি দিয়ে বলা হয়, তাদের মেয়েকে বাড়িতে পাঠিয়ে দিতে, তা না করে পুলিশকে জানালে তার ফল ভাল হবে না। এছাড়া তার মুখ কয়লা দিয়ে কালো বানিয়ে দেয়া হয়। মারধরের পর অজ্ঞান হলে তাকে সেখানে ফেলে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।

জ্ঞান ফিরলে তিনি তার ভাইকে ডেকে স্থানীয় থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তারপর থেকেই তরুণীর বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, কারো ক্ষতি করার উদ্দেশে আঘাত করা, বেআইনি ভাবে আটক করা, ফৌজদারি উদ্দেশ্যে আঘাত, সম্মানহানিসহ বিভিন্ন ধারায় অভিযোগ দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের আটকে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

এসএ/এমকেএইচ