সৌদি অ্যারামকোতে প্রথমবারের মতো নারী প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫১ এএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল রফতানিকারক কোম্পানি সৌদি অ্যারামকো তাদের বৈদেশিক বাণিজ্য দেখাশোনার জন্য একজন নারীকে নিয়োগ দিয়েছে। রক্ষণশীল এই মুসলিমপ্রধান দেশটিতে এর আগে কোনো নারীকে এই পদে বসানো হয়নি। বিষয়টি সম্পর্কে অবগত দুটি সূত্র তথ্যটি জানিয়েছে।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স ওই দুই সূত্রের বরাতে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, অ্যারামকোতে প্রথমবারের মতো কোনো প্রধানের পদে নিয়োগ পাওয়া ওই নারী হলেন মারওয়া আল-খুজাইম। তিনি আগামী মাস থেকে অ্যরামকোর এশিয়া-সিঙ্গাপুরের হাল ধরবেন।

বর্তমানে ওই পদে দায়িত্ব পালন করছেন নাদের আল-আরফাজ। ডিসেম্বরে তার স্থলাভিষিক্ত হতে যাওয়া মারওয়া আল-খুজাইম বর্তমানে অ্যারামকো কেমিক্যালস কোম্পানির একটি ইউনিটের সাপ্লাইন চেইন ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার লিংকডইন প্রোফাইল থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

অ্যারামকো বিশ্বের সবচেয়ে লাভজনক একটি কোম্পানি। গত মাসে কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত হওয়ার ঘোষণা দেয়। আগামী ১৭ নভেম্বর কোম্পানিটি প্রথমবোরের মতো ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিংয়ের (আইপিও) মাধ্যমে ২ হাজার থেকে থেকে ৪ হাজার কোটি ডলারের মূলধন সংগ্রহ করবে।

তবে প্রথমবারের মতো কোনো নারীকে বৈদেশিক কর্মকর্তা নিয়োগ দেয়ার ব্যাপারে রয়টার্স ইমেইলের মাধ্যমে অ্যারামকো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা এখনই এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। প্রসঙ্গত, যুবরাজ সালমানের ‘সংস্কারনীতির কল্যাণে’ দেশটিতে বিভিন্নভাবে নারীদের শৃঙ্খল মুক্তির প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

ভেনেজুয়েলার পর সৌদি আরবের তেলের রিজার্ভই সবচেয়ে বেশি। এছাড়া তেল উত্তোলনের দিক থেকেও দেশটি দ্বিতীয়। তেল উত্তোলনে প্রথম অবস্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র। সস্তায় তেল উত্তোলন আর তেল সম্পদে একচ্ছত্র মালিকানা অ্যারামকোকে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী তেল কোম্পানি হিসেবে বিবেচিত।

এসএ/জেআইএম