ভিয়েতনামে ঘূর্ণিঝড় নাকরির আঘাত, ছুটছে বঙ্গোপসাগরের দিকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

দক্ষিণ চীন সাগরে সৃষ্ট প্রবল ঘূর্ণিঝড় নাকরি ভিয়েতনামে আঘাত হেনেছে। এতে অন্তত দুজনের প্রাণহানি ও চার শতাধিক বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বৃহস্পতিবার স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ভিয়েতনামে আঘাত হানার পর প্রবল এই ঘূর্ণিঝড় দক্ষিণ চীন সাগর থেকে মিয়ানমারের দক্ষিণাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ভিয়েতনামের আবহাওয়া দফতর বলছে, ঘূর্ণিঝড় নাকরির তাণ্ডবে কমপক্ষে ৪৫০টি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে দু'জনের প্রাণহানি ও আরও একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় নাকরির তাণ্ডবে প্রায় ১ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সড়ক পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

নাকরি ভয়াল রূপ ধারণ জানতে ৮ নভেম্বর থেকে স্যটেলাইট ম্যাপিং সিস্টেম চালু করে ইউরোপীয় কমিশন। আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভিয়েতনামের পূর্ব ও উত্তর ভাগে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে সেখানকার আবহাওয়া দফতর।

দক্ষিণ থাইল্যান্ড অতিক্রম করে মিয়ানমারের দক্ষিণাঞ্চলে এসে পৌঁছবে এই ঝড়। মিয়ানমার পর্যন্ত এসে পৌঁছালেও এই ঝড়ের লন্ডভন্ড করার শক্তি আর অবশিষ্ট থাকবে না। তবে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে।

মিয়ানমারের পর বঙ্গোপসাগরের দিকে ধেয়ে আসবে এই ঘূর্ণিঝড়। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, বঙ্গোপসাগর থেকে ফের শক্তি সঞ্চয় করতে পারে শক্তি হারিয়ে দুর্বল হতে যাওয়া নাকরি। আবহাওয়াবিদদের আশঙ্কা সত্যি হলে তা আছড়ে পড়তে পারে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ ও ওড়িশায়। কিন্তু এই ঝড় কবে ভারতে এসে পৌঁছাবে, সে সম্পর্কে কোনো তথ্য নয়াদিল্লির আবহাওয়া দফতর জানাতে পারেনি।

গত সপ্তাহে বুলবুলের তাণ্ডবে বাংলাদেশ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ২০ জনের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। লণ্ডভন্ড হয়েছে হাজার হাজার ঘরবাড়ি।

এসআইএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]