ফ্লোরিডায় সৌদি নাগরিকের হামলাকে ‘বর্বরোচিত’ বললেন বাদশাহ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:২১ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় দেশটির সামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে সৌদি আরবের বিমানবাহিনীর এক কর্মকর্তার গুলিতে অন্তত তিনজনের প্রাণহানি ঘটেছে। শুক্রবারের এ ঘটনায় সৌদি ওই নাগরিকও গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন। মার্কিন নৌঘাঁটিতে এই হামলার ঘটনাকে ‘বর্বোরোচিত’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, ‘আন্তরিক সমবেদনা’ জানানোর জন্য সৌদি বাদশাহ তাকে টেলিফোন করেছিলেন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, শুক্রবার ফ্লোরিডার পেনসাকোলা সামরিক ঘাঁটিতে সৌদি আরবের বিমানবাহিনীর এক কর্মকর্তা গুলি চালিয়ে তিনজনকে হত্যা ও আরও ৮ জনকে আহত করেছেন। ওই কর্মকর্তা সামরিক প্রশিক্ষণ নিতে যুক্তরাষ্ট্রে ছিলেন।

মার্কিন গণমাধ্যমে হামলাকারী ওই ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ সায়িদ আলশামরানি বলে উল্লেখ করা হয়েছে। দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই হামলার উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি। তবে সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে এই হামলার সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা সেটি মাথায় রেখে তদন্ত চালাচ্ছেন কর্মকর্তারা।

মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য ম্যাট গ্যায়েটজ এবিসি নিউজকে বলেছেন, এটা হত্যাকাণ্ড। এটা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড। ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিস্যান্টিস বলেছেন, হামলাকারী ব্যক্তি সৌদি আরবের বিমান বাহিনীর কর্মকর্তা।

ফ্লোরিডার ওই সামরিক ঘাঁটির কমান্ডার টিমোথি কিনসেলা জুনিয়র নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেছেন, বিমানের ফ্লাইট প্রশিক্ষণের জন্য সেখানে শত শত শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে। হামলাকারী ব্যক্তিও বিমানের প্রশিক্ষণার্থী ছিলেন।

মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রধান মিত্র সৌদি আরব। এই দুই দেশের মাঝে দ্বিপাক্ষিক সামরিক কর্মসূচি চালু রয়েছে। গত এক সপ্তাহের মধ্যে মার্কিন সামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে এ নিয়ে দুটি গোলাগুলির ঘটনা ঘটল।গত বুধবার দেশটির হাওয়াইয়ের পার্ল হারবর সামরিক ঘাঁটিতে মার্কিন নৌবাহিনীর এক সৈনিক গুলি চালিয়ে দুই কর্মীকে হত্যা করেন।

এসআইএস/জেআইএম