‘ধর্ষকদের এনকাউন্টার হবে, তারা সুবিচার পাবে না’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৭ পিএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের তেলেঙ্গানার পশু চিকিৎসক এক তরুণীকে ধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত চার ধর্ষক পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ার পর এই বন্দুকযুদ্ধের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন রাজ্যের জ্যেষ্ঠ এক মন্ত্রী। বিচারবহির্ভূত এই হত্যাকাণ্ডের পক্ষে মন্ত্রী বলেছেন, কেউ ধর্ষণের মতো নির্মম কোনো অপরাধ করলে তার পরিণতি প্রত্যাশিত ‘এনকাউন্টার’ হতে পারে।

তেলেঙ্গানার পশুপালনবিষয়ক মন্ত্রী তালাসানি শ্রীনিবাস যাদব স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসব মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, এটা একটা শিক্ষা। যদি কেউ অপরাধ করেন, তাহলে তিনি বিচারিক কোনো সুবিধা যেমন কারাদণ্ড কিংবা জামিনের মতো কোনো সুবিধা পাবেন না। এ ধরনের কোনো কিছুই আর এখন হবে না।

পুলিশের সঙ্গে ধর্ষকদের এনকাউন্টারের ব্যাপারে শ্রীনিবাস বলেন, এর মাধ্যমে আমরা একটি বার্তা দিয়েছি যে, কেউ যদি নির্মম কিংবা ভুল কিছু করে; তাহলে সেখানে এনকাউন্টার হবে।

রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে কে চন্দ্র শেখর রাও সরকারের অঙ্গীকার রক্ষায় ধর্ষকদের এই এনকাউন্টারের ঘটনা উদাহরণযোগ্য বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী শ্রীনিবাস। যদিও তেলেঙ্গানায় বিচাবহির্ভূত এই হত্যাকাণ্ড ঘিরে দেশটির বেশ কিছু মানবাধিকার সংস্থা নিন্দা প্রকাশ করেছে।

মন্ত্রী তালাসানি শ্রীনিবাস যাদব বলেন, আমরা একটা কঠোর বার্তা দিয়েছি। আমরা সারাদেশের জন্য একটা আদর্শ নির্ধারণ করেছি। আমরা শুধুমাত্র কল্যাণমূলক প্রকল্পের মাধ্যমে নয়, বরং আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত বিষয়গুলো পরিচালনার মাধ্যমে একটি রোল মডেল স্থাপন করেছি।

তেলেঙ্গানায় ধর্ষণের পর ওই তরুণীকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্র শেখর রাও কোনো বিবৃতি কিংবা ভূক্তভোগী পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাননি। এ নিয়ে তেলেঙ্গানার বিভিন্ন পক্ষ রাজ্যের এই মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র সমালোচনা করেছেন।

রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী পি অজয় কুমারও শুক্রবার পশুপালনমন্ত্রী শ্রীনিবাসের সুরেই কথা বলেছেন। তিনি বলেন, দ্রুত বিচার নিশ্চিত করার জন্য রাজ্য রোল মডেল স্থাপন করেছে। পি অজয় কুমার বলেন, আমরা দেখিয়েছি যে, কেউ যদি আমাদের কন্যাদের দিকে শয়তানি দৃষ্টি দেয়, তাহলে আমরা তার চোখ উপড়ে ফেলবো। এনকাউন্টারের ঘটনা নিহত তরুণীর পরিবারে শান্তি এনেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তবে তেলেঙ্গানায় ধর্ষকদের বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদে। তিনি বলেছেন, বিচার যখন প্রতিশোধের রূপ নেয়; তখন বিচারের বৈশিষ্ট্য হারিয়ে যায়। আমি বিশ্বাস করি প্রতিশোধ নেয়া হলে বিচার তার মূল বৈশিষ্ট্য হারায়।

গত ২৭ নভেম্বর রাতে তেলেঙ্গানার শামশাবাদে এক তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা করে চার মোটরশ্রমিক। এ ঘটনায় দেশটিতে অভিযুক্ত ধর্ষকদের দ্রুত বিচারের দাবি উঠলেও অনেকেই এনকাউন্টারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন। গত শুক্রবার ওই তরুণীকে ধর্ষণে অভিযুক্তদের নিয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান যায় পুলিশ। এ সময় অভিযুক্তরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই চার অভিযুক্ত মারা যায়।

সূত্র : এনডিটিভি।

এসআইএস/পিআর