নিউজিল্যান্ডে অগ্ন্যুৎপাতে নিহত বেড়ে ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৪১ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে এখন পর্যন্ত পাঁচজনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। দেশটির জনপ্রিয় পর্যটন এলাকা হোয়াইট আইল্যান্ডে সোমবার আগ্নেয়গিরি থেকে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়। সেখানে এখনও বহু মানুষ আটকা পড়ে আছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

পুলিশের ডেপুটি কমিশনার জন টিমস বলেন, বেশ কয়েকজন এখনও নিখোঁজ রয়েছে। তবে সঠিক সংখ্যা নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি। ওই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নিখোঁজ লোকজনের সঙ্গে এখনও কোনো যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন বলেছেন, অগ্ন্যুৎপাতের পর এখনও অনেকের খোঁজ পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, আগ্নেয়গিরির সময় সেখানে আটকা পড়া বেশ কয়েকজন বিদেশী নাগরিক। তিনি বলেন, আমরা জানি যে, সেখানে ওই বিপর্যয়ের সময় নিউজিল্যান্ড এবং অন্যান্য দেশের পর্যটকরা ছিলেন।

নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ এখনও অনেকেই সেখানে অবস্থান করছে। আর সেখানে উদ্ধার অভিযান চালানোও এখন বেশ বিপজ্জনক।

ওয়াকারি নামেও পরিচিত হোয়াইট আইল্যান্ড। সেখানে দেশটির অন্যতম সক্রিয় আগ্নেয়গিরি অবস্থিত। দেশটির জনপ্রিয় এই দ্বীপটিতে প্রতি বছর বহু দেশ থেকে পর্যটকরা ঘুরতে আসেন।

সেখানে বেশ কিছু হেলিকপ্টার এবং বিমান দেখা গেছে। সামাজিক মাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন ফুটেজ ও ভিডিওতে আগ্নেয়গিরি থেকে চারদিকে মেঘের মতো সাদা ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। দ্বীপটি থেকে জীবিতদের পর্যটন নৌকায় করে উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রতি বছর ওই এলাকায় প্রায় ১০ হাজার পর্যটক ঘুরতে যান। প্রায় ৫০ বছর ধরে বেশ কয়েকবার এই আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটেছে। এর আগে ২০১৬ সালে আগ্নেয়গিরিটিতে অগ্ন্যুৎপাত হয়।

অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনায় আহতদের উদ্ধার করে উপকূলে পাঠানো হয়েছে। নর্থ আইল্যান্ডের পূর্ব উপকূল থেকে মাত্র ৫০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত হোয়াইট আইল্যান্ড। ধারণা করা হচ্ছে যে, আগ্নেয়গিরি থেকে অগ্ন্যুৎপাতের সময় সেখানে প্রায় ৫০ জন ছিলেন। এখন পর্যন্ত সেখান থেকে ২৩ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

টিটিএন/এমকেএইচ