‘তথ্য পেতে শরীর দেন অনেক নারী রিপোর্টার’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫৪ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজের সঞ্চালক জেসি ওয়াটারস বেফাঁস মন্তব্য করে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন। তিনি দাবি করেছেন, তথ্য পেতে অনেক নারী সাংবাদিক সোর্সের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক পর্যন্ত করেন। অতীতে এমন অনেক ঘটনা রয়েছে।

ফক্স নিউজের টকশো প্রোগ্রাম ‘দ্য ফাইভ’-এ এসে বুধবার জেসি ওয়াটারস বলেন, ‘এমন ঘটনা সর্বদাই ঘটছে। এমনকি পুরুষ সাংবাদিকরাও এমনটা করেন।’

বিতর্কটা মূলত শুরু হয়েছে হলিউডখ্যাত পরিচালক ক্লিন্ট ইস্টউডের আসন্ন ‘রিচার্ড জুয়েল’ ছবিকে ঘিরে। ছবির ট্রেলারে দেখানো হয়েছে, সোর্সের কাছ থেকে খবর বের করার জন্য তার সঙ্গে যৌনসম্পর্ক করছেন এক সাংবাদিক।

তবে, ফক্স নিউজের সঞ্চালকের ভাষ্য, বাস্তবে এর সত্যতা রয়েছে। হলিউড তো বটেই, বাস্তব জীবনেও এটা নিত্যদিনের ঘটনা।

আলি ওয়াটকিন্স নামে এক সাংবাদিকের উদাহরণও টেনে তিনি বলেন, ‘তথ্য বের করার জন্য চার বছর ধরে তার এক সোর্সের শয্যাসঙ্গিনী হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল আলি ওয়াটকিন্সের বিরুদ্ধে। পলিটিকোর (যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক পত্রিকা) রিপোর্ট এমনই বলছে। তার বক্তব্যের স্বপক্ষে নিউইয়র্ক টাইমসের এক সাংবাদিকের উদাহরণও টেনে আনেন ওয়াটারস।

লাইভ অনুষ্ঠানে তার এ ধরনের মন্তব্যের পরই তুমুল সমালোচনার ঝড় বইছে। সিএনএনের এক সঞ্চালক এসই কাপ ওয়াটারসের এই দাবির তীব্র বিরোধিতা করে টুইট করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘অত্যন্ত বিরক্তিকর এবং ভিত্তিহীন একটি অভিযোগ। এ ব্যাপারে প্রতিবাদ করে নিজেদের নারী সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়ানো উচিত ফক্সের।’

তবে বুধবারই প্রথম প্রতিবাদটা করেন ওয়াটারসের সহ-সঞ্চালক জুয়ান উইলিয়ামস। এই নারী সহ-সঞ্চালক ওয়াটারসকে বলেন, ‘আপনি যা বলেছেন, তাতে আমার কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু আমি মনে করি না বেশিরভাগ নারী সাংবাদিকই এমন!’

তার এ মন্তব্যে একটু নমনীয় হন ওয়াটারস। এবার তার কথা একটু ঘুরিয়ে বলেন, ‘সব নারী সাংবাদিকের কথা কিন্তু আমি বলিনি। পুরুষ সাংবাদিকরাও এমনটা করেন। শুধু বলতে চেয়েছি এমনটাই হয়। অতীতে এরকম অনেকবার হয়েছে।’

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও বিতর্কে জড়িয়েছেন ওয়াটারস। ২০১৭ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভানকা ট্রাম্পকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল তার বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, ‘মাইক্রোফোনে তিনি যেভাবে কথা বলছিলেন, আমার দারুণ লেগেছে।’

এসআর/পিআর