কেনিয়ায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে হামলা, নিহত ৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৭ পিএম, ০৬ জানুয়ারি ২০২০

কেনিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাবের হামলায় মার্কিন সামরিক বাহিনীর এক সদস্যসহ অন্তত তিনজন নিহত হয়েছে। আক্রান্ত ঘাঁটিটি কেনিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের সৈন্যরা ব্যবহার করতো বলে মার্কিন সেনাবাহিনী জানিয়েছে। রোববার সোমালিয়া সীমান্ত সংলগ্ন কেনিয়ার লামু কাউন্টির মার্কিন ঘাঁটিতে ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

মার্কিন সামরিক বাহিনীর আফ্রিকা কমান্ড প্রাণহানির তথ্য নিশ্চিত করে বলেছে, লামু কাউন্টির মান্ডা বে এয়ারফিল্ড ঘাঁটিতে আল-শাবাবের হামলায় মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সঙ্গে কর্মরত দুই আমেরিকান আহত হয়েছেন।

আফ্রিকা কমান্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আহত দুই আমেরিকানের অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর অভিজাত শাখা কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যার ঘটনায় মধ্যপ্রাচ্যে তেহরানের সঙ্গে যখন ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে, তখন কেনিয়ায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে হামলা ওয়াশিংটনের জন্য নতুন সঙ্কট তৈরি করেছে।

জেনারেল সোলেইমানি হত্যা ঘিরে এ দুই দেশের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। উভয় দেশের হুমকি-পাল্টা হুমকিতে মধ্যপ্রাচ্যে সংঘাতের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

কট্টর ইসলামি আইনের শাসন ও সোমালিয়ার ক্ষমতাসীন সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে এক দশকের বেশি সময় ধরে লড়াই করছে জঙ্গিগোষ্ঠী আল-শাবাব। প্রত্যক্ষদর্শীরা ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, লামু কাউন্টির মান্ডা বে এয়ারফিল্ড ঘাঁটিতে আল-শাবাবের যোদ্ধাদের সঙ্গে মার্কিন বাহিনীর সংঘর্ষ চলে প্রায় চার ঘণ্টা ধরে।

আল-শাবাবের এই হামলার পর কেনিয়ার পুলিশের তৈরি একটি প্রতিবেদন দেখতে পেয়েছে রয়টার্স। এতে বলা হয়েছে, আল-শাবাব জঙ্গিরা মার্কিন সামরিক বাহিনীর দুটি বিমান, দুটি হেলিকপ্টার ও বেশ কিছু সামরিক যানবাহন ধ্বংস করেছে।

হামলায় ৫ জঙ্গি নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে কেনিয়ার সামরিক বাহিনী। তাৎক্ষণিকভাবে কেনিয়ার সামরিক বাহিনীর হতাহতের তথ্য পাওয়া যায়নি। এর আগে, আল-শাবাবের এক বিবৃতিতে দাবি করা হয়, মার্কিন সামরিক বাহিনীর সাতটি বিমান, তিনটি সামরিক যান ধ্বংস করা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত আর কোনও তথ্য দেয়া হয়নি ওই বিবৃতিতে।

আল-শাবাবের প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা যায়, মুখোশ পরিহিত আল-শাবাব সদস্যরা পুড়তে থাকা একটি বিমানের পাশে দাঁড়িয়ে আছেন। মার্কিন সামরিক বাহিনীর আফ্রিকা কমান্ড বলছে, কেনিয়ার ওই ঘাঁটিতে দেড়শ সৈন্য রয়েছে। পূর্ব আফ্রিকার এই দেশটির সামরিক বাহিনীর সদস্যদের প্রশিক্ষণ এবং সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় সহায়তা করতে কাজ করছে মার্কিন সৈন্যরা।

এসআইএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]