যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সম্পর্কের অবনমন চান ইরানের এমপিরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫০ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে তেহরানের সম্পর্ক অবনমনের পক্ষে গতকাল মঙ্গলবার ইরানের প্রায় একশ আইনপ্রণেতা দেশটির পার্লামেন্ট ইসলামিক শূরা পরিষদে একটি বিল উত্থাপন করেছেন। তাদের দাবি, তেহরানে যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত থেকে শুরু করে কনস্যুলার পর্যন্ত সব পর্যায়ে এই অবনমন করতে হবে।

গত দুদিন ধরে ইরানের আইনপ্রণেতা ও রাজনীতিবিদেরা তেহরানে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত রব ম্যকায়ারকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়ে আসছেন। গত শনিবার ইরানের রাজধানী তেহরানে সরকারবিরোধ এক বিক্ষোভে ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত উপস্থিত হওয়ার পর তাকে বহিষ্কারের দাবি ওঠে।

ইরানের পার্লামেন্ট সদস্য (এমপি) আহমাদ আমিরাবাদি ফারাহানি দেশটির বেসরকারি সংবাদ সংস্থা তাসনিমকে বলেন, আগামী দিনে এ সংক্রান্ত একটি বিল নিয়ে আলোচনার জন্য দিনক্ষণ ঠিক করা হবে। ওই বিল পাস হলে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে রাজনৈতিক ও কনস্যুলার পর্যায়ের সম্পর্ক অবনমন করতে হবে ইরান সরকারকে।

ইরানের পার্লামেন্টে উত্থাপনের অপেক্ষায় থাকা ওই বিল পাশ হলে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে আন্তর্জাতিক আদালতে ইরানি জনগণের অধিকার পূরণের জন্য প্রয়োজনীয় আইনি, বিচারিক ও রাজনৈতিক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং প্রতি তিনমাসে সংসদের জাতীয় সুরক্ষা ও পররাষ্ট্রনীতি কমিটিতে একটি প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ থাকবে।

এদিকে ইরানের গণমাধ্যম বলছে, বুধবার নিজ দেশে ফিরে গেছেন রাষ্ট্রদূত রব ম্যাকায়ার। ইরানের বিভিন্ন মহল থেকে তাকে বহিষ্কারের দাবি জোরালো হওয়ার মধ্যেই তিনি তেহরান ত্যাগ করেন। ইরানের কূটনৈতিক সুত্রগুলো জানিয়েছে, ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত নিয়ম মেনে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েই তেহরান ছেড়েছেন।

গত শনিবার রাতে ইরানের রাজধানী তেহরানের একটি বিক্ষোভস্থল থেকে ম্যাকায়ারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। কোনো বিদেশি কূটনীতিক অনুমোদনহীন বিক্ষোভে অংশ নিতে পারেন না এমন অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ উসকে দেয়ারও অভিযোগ ওঠে।

এসএ/পিআর