মোদির বিরুদ্ধে পোস্ট দিয়ে বিপাকে নিরাপত্তাকর্মী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১৫ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে বিপাকে পড়েছেন রাজ্যসভার এক নিরাপত্তাকর্মী। এ কারণে তাকে উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডুর রোষের মুখে পড়তে হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ১২ ফেব্রুয়ারি রাজ্যসভা একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, রাজ্যসভার নিয়ম মেনেই বেঙ্কাইয়া নায়ডু উরুজুল হাসান নামের এক নিরাপত্তাকর্মীকে আগামী পাঁচ বছরের জন্য অধস্তন কর্মী হিসেবে কাজ করার শাস্তি দিয়েছেন।

উরুজুল হাসান রাজ্যসভার নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ের ডেপুটি ডিরেক্টর ছিলেন। রাজ্যসভার যাবতীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার দেখভাল করতেন তিনি। রাজনৈতিক নিরপেক্ষতা হারানোর অভিযোগে ইতোমধ্যে তাকে সাসপেনশনে পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, আগামী পাঁচ বছরের জন্য তাকে সাধারণ নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করতে হবে। শুধু তাই নয়, এই পাঁচ বছর তার বেতন বাড়বে না, বা পদোন্নতি হবে না। এই পাঁচ বছরের মধ্যে যদি তার চুক্তি শেষ হয়, তাহলেও তার সঙ্গে চুক্তির নবায়ন করবে না রাজ্যসভা কর্তৃপক্ষ।

রাজ্যসভার নিয়ম অনুযায়ী, কর্মীরা এমন কোনো কাজ করতে পারে না, যাতে একজন সরকারি কর্মীর পদের অমর্যাদা হয়। সেই নিয়মের আওতায় এনেই উরুজুল হাসান নামের ওই ব্যক্তিকে শাস্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যসভা কর্তৃপক্ষ।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে সামাজিক মাধ্যমে অপমানজনক পোস্ট করেছেন। এমনকি, মোদির নাম নিয়ে রসিকতা করারও অভিযোগ রয়েছে ওই কর্মীর বিরুদ্ধে। একদিন বা দুদিন নয়, বেশ কয়েক বার প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে অপমানজনক পোস্ট শেয়ার করেছেন ওই ব্যক্তি, যার জেরে তাকে শাস্তি পেতে হলো।

এমএসএইচ/এমএস