চীনের স্বস্তি, নতুন করে আক্রান্ত হয়নি কেউ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০২ পিএম, ২৩ মে ২০২০

চীনে প্রথমবারের মতো কেউ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি। দেশটিতে করোনার প্রাদুর্ভাবের পর এই প্রথম কারো শরীরে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়েনি। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

বেইজিংয়ের ন্যাশনাল হেলথ কমিশন শনিবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, চীনের মূল খণ্ডে মাত্র দু'জন রোগী সন্দেহের তালিকায় আছেন। এদের একজন সাংহাইতে এবং অন্যজন উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় জিলিয়ান প্রদেশের।

চীনের মূল ভূখণ্ডে ২২ মে নতুন করে কারো দেহে করোনা শনাক্ত হয়নি। ন্যাশনাল হেলথ কমিশন বলছে, ২১ তারিখের হিসাব অনুযায়ী, নতুন করে আক্রান্ত হয়েছিল চারজন। অর্থাৎ ২১ মের পর নতুন করে আর কারো আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে, উপসর্গবিহীন রোগীর সংখ্যাও কমতে শুরু করেছে। নতুন করে উপসর্গবিহীন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৮ জন। একদিন আগেই এই সংখ্যা ছিল ৩৫।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮২ হাজার ৯৭১ জনেই অবস্থান করছে। অপরদিকে এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩৪ জনের।

গত ৩১ ডিেসম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই প্রথম প্রাণঘাতী করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ে। চীনে এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।

china-1.jpg

তবে গত কয়েক মাসের প্রচেষ্টায় চীন ইতোমধ্যেই করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছে। দেশটিতে নতুন করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা শূন্যতে নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

এদিকে, ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের জন্য তৈরি চীনের একটি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগের কাজ আরও এগিয়ে গেছে।

১০৮ জন সুস্থ স্বেচ্ছাসেবীর দেহে ওই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে ভালো ফল দেখতে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ওই স্বেচ্ছাসেবীদের দেহে এই ভ্যাকসিন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।

চীনা প্রতিষ্ঠান ক্যানসিনো এই ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে। চলতি বছরের শুরুর দিকে এর ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু হয়। যেসব স্বেচ্ছাসেবীর দেহে এই ভ্যাকসিন পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হয়েছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগের দেহেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয়েছে। যদিও তাদের শরীরে তৈরি হওয়া অ্যান্ডিবডির মাত্রা ছিল কিছুটা কম।

মেডিক্যাল জার্নাল ল্যানচেটে ওই গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্বেচ্ছাসেবীদের দেহে তাদের ভ্যাকসিন সহনীয় হয়ে উঠেছে এবং নভেল করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে।

টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

৬৫,৩০,১৮৯
আক্রান্ত

৩,৮৫,৩২০
মৃত

৩১,০৯,৭৮৫
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ৫৫,১৪০ ৭৪৬ ১১,৫৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৮,৯৭,০৬০ ১,০৮,৯২৬ ৬,৫১,২৮৫
ব্রাজিল ৫,৬০,৭৩৭ ৩১,৪১৭ ২,৫৩,৫৭০
রাশিয়া ৪,৩২,২৭৭ ৫,২১৫ ১,৯৫,৯৫৭
স্পেন ২,৮৭,৪০৬ ২৮,৭৫২ ১,৯৬,৯৫৮
যুক্তরাজ্য ২,৭৯,৮৫৬ ৩৯,৭২৮ ৩৪৪
ইতালি ২,৩৩,৮৩৬ ৩৩,৬০১ ১,৬০,৯৩৮
ভারত ২,১৬,৮০৫ ৬,০৮৮ ১,০৪,০৭১
ফ্রান্স ১,৮৯,২২০ ২৯,০২১ ৬৯,৪৫৫
১০ জার্মানি ১,৮৪,৩৯৬ ৮,৬৯৮ ১,৬৭,৩০০
১১ পেরু ১,৭৮,৯১৪ ৪,৮৯৪ ৭২,৩১৯
১২ তুরস্ক ১,৬৬,৪২২ ৪,৬০৯ ১,৩০,৮৫২
১৩ ইরান ১,৬০,৬৯৬ ৮,০১২ ১,২৫,২০৬
১৪ চিলি ১,১৩,৬২৮ ১,২৭৫ ৮৬,১৭৩
১৫ মেক্সিকো ৯৭,৩২৬ ১০,৬৩৭ ৭০,৩০৮
১৬ কানাডা ৯৩,০৪৪ ৭,৪৯৫ ৫০,৯৮৪
১৭ সৌদি আরব ৯১,১৮২ ৫৭৯ ৬৮,১৫৯
১৮ চীন ৮৩,০২২ ৪,৬৩৪ ৭৮,৩১৫
১৯ পাকিস্তান ৮০,৪৬৩ ১,৬৮৮ ২৮,৯২৩
২০ কাতার ৬২,১৬০ ৪৫ ৩৭,৫৪২
২১ বেলজিয়াম ৫৮,৬৮৫ ৯,৫২২ ১৫,৯৫৯
২২ নেদারল্যান্ডস ৪৬,৭৩৩ ৫,৯৭৭ ২৫০
২৩ বেলারুশ ৪৫,১১৬ ২৪৮ ২০,১৭১
২৪ সুইডেন ৪০,৮০৩ ৪,৫৪২ ৪,৯৭১
২৫ ইকুয়েডর ৪০,৪১৪ ৩,৪৩৮ ২০,০১৯
২৬ দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৭,৫২৫ ৭৯২ ১৯,৬৮২
২৭ সিঙ্গাপুর ৩৬,৪০৫ ২৪ ২৩,৫৮২
২৮ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৩৬,৩৫৯ ২৭০ ১৯,১৫৩
২৯ পর্তুগাল ৩৩,২৬১ ১,৪৪৭ ২০,০৭৯
৩০ কলম্বিয়া ৩১,৮৩৩ ১,০০৯ ১১,১৪২
৩১ সুইজারল্যান্ড ৩০,৮৯৩ ১,৯২১ ২৮,৬০০
৩২ কুয়েত ২৯,৩৫৯ ২৩০ ১৫,৭৫০
৩৩ মিসর ২৮,৬১৫ ১,০৮৮ ৭,৩৫০
৩৪ ইন্দোনেশিয়া ২৮,২৩৩ ১,৬৯৮ ৮,৪০৬
৩৫ আয়ারল্যান্ড ২৫,১১১ ১,৬৫৯ ২২,৬৯৮
৩৬ ইউক্রেন ২৪,৮২৩ ৭৩৫ ১০,৪৪০
৩৭ পোল্যান্ড ২৪,৬৮৭ ১,১১৫ ১২,০১৪
৩৮ ফিলিপাইন ১৯,৭৪৮ ৯৭৪ ৪,১৫৩
৩৯ রোমানিয়া ১৯,৬৬৯ ১,২৯৬ ১৩,৮০০
৪০ আর্জেন্টিনা ১৮,৩১৯ ৫৭০ ৫,৮৯৬
৪১ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ১৮,০৪০ ৫১৬ ১১,২২৪
৪২ ইসরায়েল ১৭,৩৭৭ ২৯১ ১৪,৯৮৩
৪৩ আফগানিস্তান ১৭,২৬৭ ২৯৪ ১,৫২২
৪৪ জাপান ১৬,৯৩০ ৮৯৪ ১৪,৬৫০
৪৫ অস্ট্রিয়া ১৬,৭৭১ ৬৭০ ১৫,৬৭২
৪৬ পানামা ১৪,০৯৫ ৩৫২ ৯,৫১৪
৪৭ ওমান ১৩,৫৩৭ ৬৭ ২,৮৪৫
৪৮ বাহরাইন ১২,৮১৫ ২০ ৭,৪১০
৪৯ কাজাখস্তান ১১,৭৯৬ ৪৮৯ ৬,২৪০
৫০ ডেনমার্ক ১১,৭৭১ ৫৮০ ১০,৫৫২
৫১ দক্ষিণ কোরিয়া ১১,৫৯০ ২৭৩ ১০,৪৬৭
৫২ সার্বিয়া ১১,৫২৩ ২৪৫ ৬,৮৫২
৫৩ বলিভিয়া ১০,৯৯১ ৩৭৬ ১,২৯৮
৫৪ নাইজেরিয়া ১০,৮১৯ ৩১৪ ৩,২৪০
৫৫ আর্মেনিয়া ১০,৫২৪ ১৭০ ৩,৪৫৪
৫৬ আলজেরিয়া ৯,৭৩৩ ৬৭৩ ৬,২১৮
৫৭ চেক প্রজাতন্ত্র ৯,৪১৪ ৩২৫ ৬,৭৪৮
৫৮ মলদোভা ৮,৭৯৫ ৩১০ ৪,৮৬৩
৫৯ ঘানা ৮,৫৪৮ ৩৮ ৩,১৩২
৬০ নরওয়ে ৮,৪৬৭ ২৩৭ ৭,৭২৭
৬১ ইরাক ৮,১৬৮ ২৫৬ ৪,০৯৫
৬২ মালয়েশিয়া ৭,৯৭০ ১১৫ ৬,৫৩১
৬৩ মরক্কো ৭,৯২২ ২০৬ ৬,৮৬৬
৬৪ অস্ট্রেলিয়া ৭,২২৯ ১০৩ ৬,৬৪০
৬৫ ফিনল্যাণ্ড ৬,৯১১ ৩২১ ৫,৫০০
৬৬ ক্যামেরুন ৬,৫৮৫ ২০০ ৩,৬৭৬
৬৭ আজারবাইজান ৬,২৬০ ৭৬ ৩,৬৬৫
৬৮ গুয়াতেমালা ৫,৫৮৬ ১২৩ ৮২৪
৬৯ হন্ডুরাস ৫,৫২৭ ২২৫ ৫৬৩
৭০ সুদান ৫,৩১০ ৩০৭ ১,৬২৫
৭১ তাজিকিস্তান ৪,১৯১ ৪৮ ২,৩৪৭
৭২ লুক্সেমবার্গ ৪,০২৪ ১১০ ৩,৮৬১
৭৩ জিবুতি ৩,৯৩৫ ২৬ ১,৬৩৬
৭৪ গিনি ৩,৯৩৩ ২৩ ২,৩৩২
৭৫ সেনেগাল ৩,৯৩২ ৪৫ ২,০৬৩
৭৬ হাঙ্গেরি ৩,৯৩১ ৫৩৪ ২,১৯০
৭৭ উজবেকিস্তান ৩,৮৪৩ ১৬ ৩,০১৪
৭৮ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৩,৪৯৫ ৭৫ ৪৯২
৭৯ আইভরি কোস্ট ৩,১১০ ৩৫ ১,৫৩০
৮০ থাইল্যান্ড ৩,০৮৪ ৫৮ ২,৯৬৮
৮১ গ্রীস ২,৯৩৭ ১৭৯ ১,৩৭৪
৮২ গ্যাবন ২,৮০৩ ২০ ৭৭৯
৮৩ এল সালভাদর ২,৭০৫ ৪৯ ১,১৭৯
৮৪ বুলগেরিয়া ২,৫৬০ ১৪৬ ১,২০৬
৮৫ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ২,৫৫১ ১৫৭ ১,৯৩৯
৮৬ হাইতি ২,৫০৭ ৪৮ ২৯
৮৭ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ২,৪৯২ ১৪৫ ১,৬০৫
৮৮ নেপাল ২,৩০০ ২৭৮
৮৯ ক্রোয়েশিয়া ২,২৪৬ ১০৩ ২,০৯৫
৯০ কেনিয়া ২,২১৬ ৭৪ ৫৫৩
৯১ সোমালিয়া ২,১৪৬ ৭৯ ৪০৬
৯২ কিউবা ২,১০৭ ৮৩ ১,৮৩০
৯৩ মায়োত্তে ১,৯৯৩ ২৪ ১,৫২৩
৯৪ এস্তোনিয়া ১,৮৮০ ৬৯ ১,৬৫০
৯৫ কিরগিজস্তান ১,৮৭১ ২০ ১,২৬৫
৯৬ মালদ্বীপ ১,৮৫০ ৬৪৪
৯৭ ভেনেজুয়েলা ১,৮১৯ ১৮ ৩৩৪
৯৮ আইসল্যান্ড ১,৮০৬ ১০ ১,৭৯৪
৯৯ শ্রীলংকা ১,৭৩৫ ১১ ৮৩৬
১০০ লিথুনিয়া ১,৬৮৪ ৭১ ১,২৬০
১০১ স্লোভাকিয়া ১,৫২৫ ২৮ ১,৩৭৫
১০২ নিউজিল্যান্ড ১,৫০৪ ২২ ১,৪৮১
১০৩ ইথিওপিয়া ১,৪৮৬ ১৭ ২৪৬
১০৪ স্লোভেনিয়া ১,৪৭৭ ১০৯ ১,৩৫৮
১০৫ মালি ১,৩৮৬ ৭৯ ৭৮৮
১০৬ গিনি বিসাউ ১,৩৩৯ ৫৩
১০৭ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১,৩০৬ ১২ ২০০
১০৮ লেবানন ১,২৫৬ ২৭ ৭২৪
১০৯ আলবেনিয়া ১,১৮৪ ৩৩ ৮৯৮
১১০ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১,১৭৩ ২৩
১১১ কোস্টারিকা ১,১৫৭ ১০ ৬৮৫
১১২ নিকারাগুয়া ১,১১৮ ৪৬ ৩৭০
১১৩ হংকং ১,০৯৪ ১,০৩৯
১১৪ জাম্বিয়া ১,০৮৯ ৯১২
১১৫ তিউনিশিয়া ১,০৮৭ ৪৯ ৯৬৫
১১৬ লাটভিয়া ১,০৭৯ ২৪ ৭৬০
১১৭ প্যারাগুয়ে ১,০৭০ ১১ ৫১১
১১৮ দক্ষিণ সুদান ৯৯৪ ১০
১১৯ নাইজার ৯৬১ ৬৫ ৮৫৭
১২০ সাইপ্রাস ৯৫৮ ১৭ ৭৯০
১২১ সিয়েরা লিওন ৯০৯ ৪৭ ৪৯১
১২২ মাদাগাস্কার ৯০৮ ১৯৫
১২৩ উরুগুয়ে ৮৮৭ ২৩ ৬৯১
১২৪ বুর্কিনা ফাঁসো ৮৮৪ ৫৩ ৭৫৩
১২৫ এনডোরা ৮৫১ ৫১ ৭৩৫
১২৬ চাদ ৮২০ ৬৬ ৫৯০
১২৭ জর্জিয়া ৮০০ ১৩ ৬৪০
১২৮ জর্ডান ৭৫৭ ৫৮৬
১২৯ মৌরিতানিয়া ৭৪৫ ৩৪ ৫৭
১৩০ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৫১
১৩১ সান ম্যারিনো ৬৭৪ ৪২ ৩৯১
১৩২ মালটা ৬২২ ৫৬২
১৩৩ কঙ্গো ৬১১ ২০ ১৭৯
১৩৪ জ্যামাইকা ৫৯০ ৩৫৬
১৩৫ ফিলিস্তিন ৫৭৭ ৩৭২
১৩৬ চ্যানেল আইল্যান্ড ৫৬১ ৪৬ ৫২৮
১৩৭ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৫৩৩ ২৫৪
১৩৮ তানজানিয়া ৫০৯ ২১ ১৮৩
১৩৯ উগান্ডা ৫০৭ ৮২
১৪০ রিইউনিয়ন ৪৭৮ ৪১১
১৪১ কেপ ভার্দে ৪৭৭ ২৩৮
১৪২ টোগো ৪৫২ ১৩ ২৩৬
১৪৩ তাইওয়ান ৪৪৩ ৪২৮
১৪৪ ইয়েমেন ৪১৯ ৯৫ ১৭
১৪৫ রুয়ান্ডা ৩৯৭ ২৭১
১৪৬ মালাউই ৩৬৯ ৫১
১৪৭ বেনিন ৩৩৯ ১৪৮
১৪৮ আইল অফ ম্যান ৩৩৬ ২৪ ৩১২
১৪৯ মরিশাস ৩৩৫ ১০ ৩২২
১৫০ ভিয়েতনাম ৩২৮ ৩০২
১৫১ মন্টিনিগ্রো ৩২৪ ৩১৫
১৫২ মোজাম্বিক ৩১৬ ১০৯
১৫৩ লাইবেরিয়া ৩১৬ ২৮ ১৬৯
১৫৪ ইসওয়াতিনি ২৯৫ ২০১
১৫৫ মায়ানমার ২৩৩ ১৪৫
১৫৬ জিম্বাবুয়ে ২০৬ ২৯
১৫৭ মার্টিনিক ২০০ ১৪ ৯৮
১৫৮ ফারে আইল্যান্ড ১৮৭ ১৮৭
১৫৯ মঙ্গোলিয়া ১৮৫ ৪৪
১৬০ লিবিয়া ১৮২ ৫২
১৬১ জিব্রাল্টার ১৭৩ ১৫৩
১৬২ গুয়াদেলৌপ ১৬২ ১৪ ১৩৮
১৬৩ গায়ানা ১৫৩ ১২ ৭০
১৬৪ কেম্যান আইল্যান্ড ১৫১ ৭৭
১৬৫ ব্রুনাই ১৪১ ১৩৮
১৬৬ বারমুডা ১৪১ ১১৩
১৬৭ কমোরস ১৩২ ২৭
১৬৮ কম্বোডিয়া ১২৫ ১২৩
১৬৯ সিরিয়া ১২৩ ৫৩
১৭০ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১১৭ ১০৮
১৭১ বাহামা ১০২ ১১ ৪৯
১৭২ আরুবা ১০১ ৯৮
১৭৩ মোনাকো ৯৯ ৯০
১৭৪ বার্বাডোস ৯২ ৮১
১৭৫ অ্যাঙ্গোলা ৮৬ ১৮
১৭৬ লিচেনস্টেইন ৮২ ৫৫
১৭৭ সিন্ট মার্টেন ৭৭ ১৫ ৬০
১৭৮ বুরুন্ডি ৬৩ ৩৩
১৭৯ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৬০ ৬০
১৮০ সুরিনাম ৫৫
১৮১ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৫৪
১৮২ ভুটান ৪৭
১৮৩ ম্যাকাও ৪৫ ৪৫
১৮৪ সেন্ট মার্টিন ৪১ ৩৩
১৮৫ বতসোয়ানা ৪০ ২৩
১৮৬ ইরিত্রিয়া ৩৯ ৩৯
১৮৭ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ২৬ ২০
১৮৮ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ২৬ ১৫
১৮৯ গাম্বিয়া ২৬ ২০
১৯০ নামিবিয়া ২৫ ১৬
১৯১ পূর্ব তিমুর ২৪ ২৪
১৯২ গ্রেনাডা ২৩ ১৮
১৯৩ নিউ ক্যালেডোনিয়া ২০ ১৮
১৯৪ কিউরাসাও ২০ ১৫
১৯৫ লাওস ১৯ ১৮
১৯৬ ডোমিনিকা ১৮ ১৬
১৯৭ সেন্ট লুসিয়া ১৮ ১৮
১৯৮ ফিজি ১৮ ১৫
১৯৯ বেলিজ ১৮ ১৬
২০০ সেন্ট কিটস ও নেভিস ১৫ ১৫
২০১ গ্রীনল্যাণ্ড ১৩ ১১
২০২ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ১৩ ১৩
২০৩ ভ্যাটিকান সিটি ১২
২০৪ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ১২ ১১
২০৫ সিসিলি ১১ ১১
২০৬ মন্টসেরাট ১১ ১০
২০৭ জান্ডাম (জাহাজ)
২০৮ পশ্চিম সাহারা
২০৯ পাপুয়া নিউ গিনি
২১০ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস
২১১ সেন্ট বারথেলিমি
২১২ লেসোথো
২১৩ এ্যাঙ্গুইলা
২১৪ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।