এবার ট্রাম্পের টুইট হাইড করে দিলো টুইটার কর্তৃপক্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩০ পিএম, ২৯ মে ২০২০

ফের টুইটারের তোপের মুখে পড়লেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মিনিসোটা অঙ্গরাজ্যে পুলিশের হেফাজতে হাতকড়া পরিহিত এক অভিযুক্তের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে করা ট্রাম্পের একটি পোস্ট হাইড করে দিয়েছে টুইটার। এর আগে তার একটি টুইটে সত্যতা যাচাই লেবেল সেঁটে দেওয়া হয়েছিল।

টুইটার কর্তৃপক্ষ বলছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওই টুইট সহিংসতাকে ‘মহিমান্বিত’ করেছে; যা তাদের নীতির বিরুদ্ধ। মার্কিন আইনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর যে আইনি সুরক্ষা রয়েছে তা প্রত্যাহারে ট্রাম্প আজ একটি নির্বাহী আদেশ জারির কয়েকঘণ্টা পর তার টুইটটি হাইড করা হয়।

সম্প্রতি ‘মেইল-ইন ভোট’ সিস্টেম নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একটি টুইট করেন। কিন্তু তার টুইটটি ছিল বিভ্রান্তিকর। তাই প্রথমবারের মতো ট্রাম্পের কোনো টুইটে ‘ফ্যাক্ট চেক’ বা সত্যতা যাচাইয়ের লেবেল সেঁটে দেয় ‍টুইটার কর্তৃপক্ষ। আর তার প্রেক্ষিতেই ট্রাম্প ওই নির্বাহী আদেশ জারি করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনোপোলিস শহরে নিরস্ত্র এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে গ্রেফতারের পর পুলিশ কর্মকর্তা হাঁটু দিয়ে তার গলা চেপে মেরে ফেলে। ওই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে শহরজুড়ে তিন দিন ধরে সহিংস বিক্ষোভ চলছে। বৃহস্পতিবার রাতে এ নিয়ে দুটি টুইট করেন ট্রাম্প।

টুইটে ট্রাম্প মিনোপোলিসের মেয়র জ্যাকব ফ্রেকে কট্টর বামপন্থী হিসেবে অভিযুক্ত করে লেখেন, ‘রাজনৈতিক নেতৃত্বের ব্যর্থতায় মিনোপোলিসের মতো শহরে এমন ঘটনা আমি সমর্থন করতে পারি না। হয় মেয়র নিজে পরিস্থিতি সামলান, না হলে আমি জাতীয় নিরাপত্তারক্ষী পাঠিয়ে ব্য়বস্থা নেব।’

ট্রাম্পের এমন মন্তব্য টুইটারের ‘সহিংসতাকে উদ্বুদ্ধ’ করা সংক্রান্ত নীতি লংঘন করেছে জানিয়ে টুইটার কর্তৃপক্ষ টুইটটি সরিয়ে দিয়েছে। ট্রাম্পের ওই টুইটের জায়গায় একটি সতর্কবার্তা জুড়ে বলা হয়, ‘এটি সহিংসতাকে উদ্ধুদ্ধ’ করা সংক্রান্ত টুইটারের নীতিমালা লংঘন করেছে।

টুইটার অবশ্য তাদের দেওয়া ওই বার্তায় আরও লিখেছে, ‘তবে এই টুইটকে ঘিরে জনসাধারণের আগ্রহ থাকতে পারে বিবেচনায় সেটি দেখার সুযোগ রাখা হয়েছে। গতদিনের ঘটনার পর ট্রাম্প টুইটারের সমালোচনা করে, সংস্থাটি তালা ঝোলানোর হুমকি দেন। নির্বাহী আদেশ জারি করেন এই কারণেই।

ট্রাম্পের ওই হুমকির প্রেক্ষিতে টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জ্যাক ডরসি তখন জানান, তারা তাদের এ সিদ্ধান্তে অনড় থাকবেন। বিশ্বের যে কোনো প্রান্তের নির্বাচন সম্পর্কে কোনও টুইটে ভুল বা বিতর্কিত কোনো তথ্য থাকলে তারা ভবিষ্যতেও একই ব্যবস্থা নেবেন।

আরও পড়ুন

ট্রাম্পের টুইটে ‘সত্য যাচাই করুন’ লেবেল সেঁটে দিল টুইটার

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, বিক্ষোভে উত্তাল মিনোপোলিস

এসএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]