ভারত-চীন সীমান্তে ‘সংঘর্ষের ভিডিও ফাঁস’, নাখোশ নয়াদিল্লি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৮ পিএম, ৩১ মে ২০২০
ছড়ানো ভিডিও থেকে নেয়া এ ছবি ফেসবুক পেজে শেয়ার দিয়ে সরকারের কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন ভারতের রাজনীতিবিদ আসাদউদ্দিন ওয়াইসি

লাদাখ সীমান্তে ভারত ও চীনের সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের একটি ভিডিও ছড়িয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। যেখানে চীনা সেনাদের হাতে ভারতের সেনাদের রক্তাক্ত হতে দেখা যায়। এই ভিডিও প্রকাশে বেজার হয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। তাদের বক্তব্য, ভিডিওটি যারা ছড়িয়েছেন তারা ‘সত্যতা যাচাই’ করেননি। যদিও এ নিয়ে আসাদউদ্দিন ওয়াইসিসহ ভারতের রাজনীতিকরা কেন্দ্রীয় সরকারের বক্তব্য দাবি করেছেন।

দুই মিনিট ৪৫ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে লাদাখের প্যাংগং সো লেকের ধারে ভারতীয় এবং চীনা সেনার মধ্যে সংঘর্ষ এবং এতে ভারতীয় জওয়ানদের রক্তাক্ত হতে দেখা যায়। ওই লেক ঘিরেই ভারত ও চীনের সেনাবাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে উঠেছে। দুপক্ষই সীমান্তে সৈন্য-সামন্ত জড়ো করেছে বলে খবরে এসেছে।

কিন্তু ভিডিওটির ব্যাপারে ভারতীয় সেনাবাহিনীর দাবি, সেটির সত্যতা যাচাই করা হয়নি। তারা বলছে, উত্তর সীমান্তের পরিস্থিতির সঙ্গে কোনো কিছুর যোগ দেখানোর যে কোনো চেষ্টা ‘অবৈধ’। কার্যত এর মাধ্যমে ভিডিওটিকে ‘জোড়াতালি দেয়া’ বলেই দাবি করা হচ্ছে।

রোববার (৩১ মে) সকালে এক বিবৃতিতে এ বিষয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল আমন আনন্দ বলেন, সীমান্তের ঘটনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ানো একটি ভিডিও আমাদের নজরে এসেছে। সেখানে আপাতত কোনো সংঘাত হচ্ছে না। দু’দেশের সীমান্ত নিয়ন্ত্রণের নির্দিষ্ট প্রটোকোল অনুযায়ী সেনা কমান্ডাররা আলোচনার মাধ্যমে বিবাদের সমাধান করছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, সীমানা বিবাদের ধারাবাহিকতায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (এলএসি) বরাবর পূর্ব লাদাখের চারটি জায়গায় ভারত ও চীনা সেনাদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি খুব মারাত্মক না হলেও সংঘর্ষের এমন ভিডিও ছড়ানোয় ক্ষুব্ধ ভারতীয় সেনাসদর। কর্নেল আনন্দ বলেন, জাতীয় সুরক্ষার ওপর প্রভাব বিস্তারকারী কোনো বিষয় অতিরঞ্জিত করার চেষ্টার কড়া নিন্দা জানানো হচ্ছে। সংবাদমাধ্যমকে এরকম ছবি না দেখানোর আর্জি জানানো হচ্ছে যা সীমান্তে বর্তমান পরিস্থিতিকে খারাপ করতে পারে।

সেনাসদর এভাবে বক্তব্য দিলেও নিখিল ভারত মজলিস-এ-ইত্তেহাদুল মুসলিমিনের (এআইএমআইএম) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি ভিডিও থেকে নেয়া একটি ছবি তার ফেসবুক পেজে শেয়ার দিয়ে বিজেপি সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি করেছেন। তিনি এতে বলেন, এটা যদি সত্য হয় তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বা প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের উচিত সর্বশক্তি নিয়ে এর জবাব দেয়া। যদি তা না হয়, তবে তাদের এটি নাকচও করতে হবে এবং চীন সীমান্তে কী ঘটছে তা দেশবাসীকে জানাতে হবে। কী কথা হচ্ছে চীনের সাথে? মোদির লোকেরা এখন মুখে কুলুপ এঁটেছে!

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, এমন ভিডিও ছড়ানোর ঘটনা এবারই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৭ সালের অগস্টে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, প্যাংগং লোকের দু'দেশের জওয়ানরা একে অপরকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ছেন। সেটি নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল সেনাসদর।

এইচএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]