গৃহকর্মীকে অমানবিক নির্যাতন, পোষাপাখি ছেড়ে দেয়ায় পিটিয়ে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০৫ পিএম, ০৩ জুন ২০২০

করোনাভাইরাসের এ দুর্যোগের সময়েও ৮ বছরের এক শিশু গৃহকর্মীর ওপর পাকিস্তানের একটি পরিবার অমানবিক নির্যাতন চালিয়েছে। শুধু ভুলবশত পরিবারটির পোষা পাখি ছেড়ে দেয়ায় ওই শিশুটিকে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে গৃহকর্তা-গৃহকর্ত্রী। শেষ পর্যন্ত ওই শিশুকে হাসপাতালে নেয়া হলেও সেখানে তার মৃত্যু হয়।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাহরা নামের ওই শিশু রাওয়ালপিন্ডির একটি পরিবারে গৃহকর্মীর কাজ করত। মারাত্মক জখম অবস্থায় তাকে স্থানীয় হাসপাতালে নেয়া হয়। তবে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

দেশটির পুলিশ জানায়, দামি পোষাপাখি খাঁচা থেকে ছেড়ে দেয়ায় স্বামী-স্ত্রী ওই শিশুটিকে নির্যাতন করেছে বলে স্বীকার করেছে। তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ৩০২ ও ৩৭৬ ধারায় তাদের নামে মামলা করা হয়। ৬ জুন পর্যন্ত তাদের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, যখন ওই শিশুকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল তখন সে জীবিত ছিল। তার হাতে, পায়ে এবং মুখে মারাত্মক জখম ছিল। এছাড়া তার উরুতেও আঘাত রয়েছে। পুলিশ ধারণা করছে, তাকে যৌন নির্যাতনও করা হয়েছে। তবে এর প্রমাণের জন্য ফরেনসিক বিভাগে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্ত শেষে জাহরার মরদেহ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পাঞ্জাবের কতু আড্ডুতে তার পরিবার বসবাস করে। চার মাস ধরে সে ওই বাসায় কাজ করত।

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাজনীতিবিদ থেকে সাধারণ জনতার অনেকেই দোষীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে।

এফআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]