বাঘ শুমারিতে গিনেস বুকে নাম উঠলো ভারতের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:০১ পিএম, ১১ জুলাই ২০২০

ক্যামেরার মাধ্যমে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বন্যপ্রাণী জরিপ চালানোর কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরুপ গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম উঠেছে ভারতের। ২০১৮ সালে ভারত পরিচালিত একটি বাঘ শুমারি করা হয় ক্যামেরার মাধ্যমে। ওই শুমারির ফলাফল প্রকাশ করা হয় ২০১৯ সালে। এবার তার স্বীকৃত মিললো।

২০১৮ সালে চতুর্থ বারের মতো পরিচালিত হয় সর্বভারতীয় ওই বাঘ শুমারি। তাতে দেখা যায়, বিশ্বের মোট বাঘের ৭৫ শতাংশই রয়েছে ভারতে। ২০১৯ সালে বাঘ দিবসে সেই ফলাফল ঘোষণা করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি ওই সময় জানান, গোটা ভারতে আনুমানিক মোট বাঘের সংখ্যা দুই হাজার ৯৬৭টি।

ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুয়ায়ী ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবেশ বিষয়ক মন্ত্রী প্রকাশ জাভেদকর গিনেস রেকর্ডের এই স্বীকৃতিকে দেশের জন্য বড় অর্জন আখ্যা দিয়ে টুইটারে লিখেছেন, ‘এটা অবশ্যই এক অবিস্মরণীয় মুহূর্ত এবং আত্মনির্ভর ভারতের এ এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।’

সর্বভারতীয় ওই শুমারিতে মোট ৩ কোটি ৪৮ লাখ ৫৮ হাজার ৬২৩টি বন্যপ্রাণীর ছবি ধারণ করা হয়। এর মধ্যে ৭৬ হাজার ৬৫১টি ছিল বাঘ এবং ৫১ হাজার ৭৭৭টি চিতাবাঘ। বাকি ছবিগুলো অন্যান্য স্থানীয় প্রাণীর। এসব ছবি বিশেষ পদ্ধতিতে সফটওয়্যারে পর্যালোচনার পর মোট ২ হাজার ৪৬১টি বাঘ শনাক্ত করা হয়।

গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস ওয়েবসাইট বলছে, ‘২০১৮-১৯ সালে পরিচালিত ভারতের চতুর্থ শুমারি সবদিকে থেকে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বিস্তৃত জরিপ। তাতে ক্যামেরা ট্রাপ স্থাপন করা হয় ১৪১টি অঞ্চলের ২৬ হাজার ৮৩৮টি স্থানে এবং প্রায় এক লাখ ২১ হাজার ৩৩৭ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় জরিপটি পরিচালনা করা হয়।’

এসএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]