ট্রাম্প নয় ফাউসিতেই আস্থা বেশিরভাগ মার্কিনির: জরিপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:০০ পিএম, ১৬ জুলাই ২০২০

ট্রাম্প প্রশাসনের কোভিড-১৯ মোকাবিলায় নিয়ে বেশিরভাগ মার্কিনি যে অসন্তুষ্ট, আগের বেশ কিছু জরিপে তার প্রমাণ মিলেছে। এবার নতুন জরিপে দেখা যাচ্ছে, প্রতি তিনজন আমেরিকানের একজনের আস্থা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ওপর। বিপরীতে শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসির ওপর আস্থা দুজনের।

সিএনএন-এর চিফ মিডিয়া করেসপন্ডেন্ট ব্রায়ান স্টেলার এক নিবন্ধে লিখেছেন, যেকোনো ইস্যুতে আমেরিকানদের দুই ভাগে ভাগ হতে দেখা যায় সব সময়। বেশিরভাগ সময় এই হারটা থাকে ৫০-৫০। কিন্তু এখন করোনার মতো একটি মহামারি মোকাবিলা নিয়ে আস্থার প্রশ্নে এই বিভাজনটা ২-১।

কুইনিপিয়াক বিশ্ববিদ্যালয়ের করা একটি নতুন জরিপে দেখা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের ত্রিশ শতাংশ নিবন্ধিত ভোটর বলছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যেসব তথ্য দেন তা বিশ্বাস করেন তারা। ট্রাম্প দাবি করেছেন তার শাসনামলে বড় সংকট চলছে। অথচ প্রতি দশজনের ৩ জন ভোটার তার ওপর আস্থা রাখছেন।

জরিপে অংশ নেওয়া ৬৭ শতাংশ নিবন্ধিত ভোটার ট্রাম্পের কোভিড-১৯ সংক্রান্ত দাবি বিশ্বাস করেন না। শুধু এটি নয় এর আগেও অনেক জরিপে দেখা গেছে, ট্রাম্পের সততা এবং বিশ্বাসযোগ্যতার ওপর আস্থা রয়েছে প্রতি তিনজনের একজন আমেরিকানের। বিপরীতে দুজন আমেরিকান তার কথা বিশ্বাস করেন না।

এতো গেল ট্রাম্পের আস্থার প্রমাণ। ওই জরিপের আরেকটি তথ্য আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। প্রায় দুই তৃতীয়াংশ নিবন্ধিত ভোটার (৬৫ শতাংশ) করোনাভাইরাস নিয়ে ট্রাম্প নয় বরং যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজের পরিচালকের দায়িত্বে থাকা ড. অ্যান্থনি ফাউসির কথা বিশ্বাস করেন।

বিপরীতে, জরিপে অংশ নেওয়া ২৬ শতাংশ নিবন্ধিত ভোটারের ফাউসিতে আস্থা নেই। এই জরিপ থেকে এটা স্পষ্ট যে বিশ্বের শীর্ষ করোনা আক্রান্ত দেশের প্রেসিডেন্টের চেয়ে দেশটির তথ্য বিশ্বের অন্যতম প্রধান একজন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের ওপর মানুষের আস্থার ফারাকটা বিশাল।

আরেকটি মজার তথ্য হলো যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) চেয়েও করোনাভাইরাস সংক্রান্ত তথ্যে ফাউসির ওপর বেশি আস্থা আমেরিকানদের। জরিপে দেখা যাচ্ছে, যেখানে ফাউসির দেওয়ার তথ্যে আস্থা রাখছেন ৬৫ শতাংশ মানুষ। সেখানে সিডিসির দেওয়ার তথ্যে আস্থা রয়েছে ৬১ শতাংশের।

অথচ ট্রাম্পের সঙ্গে স্বাস্থ্যখাতে বিশেষজ্ঞদের মতবিরোধের কারণে তার প্রশাসনের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র তথা বিশ্বের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ এবং হোয়াইট হাউসের করোনা টাস্কফোর্সের অন্যতম সদস্য ডা. অ্যান্থনি ফাউসি।

ডা. ফাউসিকে নিয়ে হোয়াইট হাউসে সমালোচনা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। সিএনএন বলছে, দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ নিয়ে কাজ করা নয় বরং হোয়াইট হাউস এখন অ্যান্থনি ফাউসির মতো গোটা আমেরিকায় সবচেয়ে জনপ্রিয় একজন ব্যক্তিত্বের সুনাম নষ্ট করার মতো গর্হিত কাজে ব্যস্ত।

তবে তার সম্মানহানি করতে হোয়াইট হাউসের চেষ্টাকে ‘উদ্ভট’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন বিশ্বের নামকরা জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি। যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবেলায় নিজেদের মধ্যকার বিভেদ দূরে সরিয়ে রাখার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেছেন, ‘চলুন এসব পাগলামি বন্ধ করি’।

এসএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]