আরব বিশ্বের প্রথম পারমাণবিক চুল্লি চালু হলো আমিরাতে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫০ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২০

বারাকাহ পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে চারটি পারমাণবিক চুল্লির মধ্যে প্রথমটির কার্যক্রম সফলভাবে শুরু হয়েছে বলে শনিবার ঘোষণা দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। আর এর মাধ্যমে আরব বিশ্বের প্রথম কোনো দেশে পারমাণবিক শক্তিকেন্দ্রের সূচনা ঘটলো। খবর কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার।

কোরিয়া ইলেকট্রিক পাওয়ার করপোরেশনের সঙ্গে যৌথভাবে এর নির্মাণ ও পরিচালনায় যুক্ত আমিরাত পারমাণবিক শক্তি করপোরেশন জানিয়েছে, আবু ধাবির আল ধাফরাহ অঞ্চলে অবস্থিত ওই পারমাণকি কেন্দ্রে প্রথম পারমাণবিক চুল্লিটির কার্যক্রম সফলভাবে শুরু করেছে তাদের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান নাওয়াহ এনার্জি কোম্পানি।

আমিরাত পারমাণবিক শক্তি করপোরেশন সফলভাবে কার্যক্রম শুরুর ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছে, ‘ইউনিট-১ এর কার্যক্রমল শুরুর বিষয়টিতে দেখা যাচ্ছে যে, চুল্লিটি নিরাপদে তাপ উৎপাদন করতে সক্ষম যা যা বাষ্প তৈরির জন্য ব্যবহৃত হয়ে টারবাইন ঘুরিয়ে বিদ্যুত উত্পাদন করছে।’

আরব বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে আমিরাতে এই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কার্যক্রম ২০১৭ সালে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও নিরাপত্তা সংক্রান্ত নানা ইস্যুতে কয়েকবার তার কার্যক্রমল শুরুর বিষয়টি পিছিয়ে যায়। তেল সমৃদ্ধ আমিরাত বারাকাহ বিদ্যুৎকেন্দ্রের মাধ্যমে দেশের মোট চাহিদার এক-চতুর্থাংশ পূরণ করতে চায়।

বিশেষজ্ঞরা যদিও প্রশ্ন তুলেছেন যে সূর্যালোক এবং বাতাসকে কাজে না লাগিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত কেনো পারমাণবিক শক্তি দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদনের পদক্ষেপ নিচ্ছে। কেননা নবায়নযোগ্য শক্তির উৎসের চেয়ে তা অনেক বেশি ব্যয়বহুল ও ঝুঁকিপূর্ণ। অনেকে এর মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্রের ঝুঁকিও দেখছেন।

এসএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]