শান্তিতে নোবেলজয়ী জন হিউম মারা গেছেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ০৩ আগস্ট ২০২০

শান্তিতে নোবেলজয়ী এবং বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ জন হিউম মারা গেছেন। তিনি ছিলেন নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের একজন জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ। ৮৩ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়েছে। খবর বিবিসির।

লন্ডনডেরির ওয়েনমোর নামের একটি নার্সিং হোমে সোমবার সকালে তার মৃত্যু হয়েছে। ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডের প্রথম শ্রেণির একজন রাজনীতিবিদ ছিলেন।

তিনি ছিলেন সোস্যাল ডেমেক্রেটিক অ্যান্ড লেবার পার্টির (এসডিএলপি) অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। এসডিএলপি প্রতিষ্ঠার পেছনে তিনি ছাড়াও আরও বেশ কয়েকজন যুক্ত ছিলেন। ১৯৭০ সালে এসডিএলপি প্রতিষ্ঠিত হয়।

১৯৭৯ সাল থেকে ২০০১ সালের নভেম্বর পর্যন্ত তিনি এসডিএলপি পার্টির নেতৃত্ব দিয়েছেন। ১৯৯৮ সালে গুড ফ্রাইডে নামের যে চুক্তি হয়েছিল সে সময় শান্তি আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন জন হিউম।

যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের আমলে ওই শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। জন হিউমের মৃত্যুতে শোক জানিয়ে টনি ব্লেয়ার বলেন, তিনি ছিলেন একজন গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। তার চিন্তা ছিল সুদূরপ্রসারী। তিনি বিশ্বাস করতেন যে, অতীত সময় যেমন গেছে ভবিষ্যত সময়ও একই হবে না।

তিনি আরও বলেন, নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে শান্তি প্রতিষ্ঠায় জন হিউমের অবদান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য তাকে সব সময়ই স্মরণ করা হবে। ১৯৯৮ সালের শান্তি চুক্তির ঘটনার পরই নোবেল পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছিলেন জন হিউম।

স্মৃতিশক্তি লোপ পেয়েছিল জন হিউমের। বহু বছর ধরেই তিনি এই রোগে ভুগছিলেন। তার পরিবারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জন হিউম ছিলেন একজন স্বামী, একজন বাবা, একজন দাদা এবং একজন ভাই। তিনি সবাইকে খুব ভালোবাসতেন। তার পরিবারের সদস্যরা সব সময় তাকে স্মরণ করবে।

টিটিএন/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]