যুক্তরাষ্ট্রে আছড়ে পড়েছে হারিকেন ইসাইয়াস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০০ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২০

করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যের উপকূলীয় এলাকায় আঘাত হেনেছে হারিকেন ইসাইয়াস। উইলমিংটনের ৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমের উপকূলীয় এলাকায় তাণ্ডব চালিয়ে সাউথ ক্যারোলিনার উত্তর-পূর্ব এবং নর্থ ক্যারোলিনার দক্ষিণাঞ্চলের দিকে ধেয়ে আসছে এই হারিকেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার (এনএইচসি) তাদের পূর্বাভাসে বলেছে, আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সাউথ ক্যারোলিনার উত্তর-পূর্ব এবং নর্থ ক্যারোলিনার দক্ষিণাঞ্চলে আঘাত হানতে পারে এই ঝড়।

এনএইচসি বলছে, মঙ্গলবার ভোর তিনটা ১০ মিনিটে হারিকেন ইসাইয়াস নর্থ ক্যারোলিনার উপকূলীয় এলাকায় ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার বাতাসের গতিবেগ নিয়ে আছড়ে পড়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে আঘাত হানার পর ক্রান্তীয় ঝড়ে পরিণত হয়েছিল ইসাইয়াস। কিন্তু ঝড়টি পুনরায় শক্তি সঞ্চয় করে বর্তমানে এটি ক্যাটেগরি এক হারিকেনে রূপ নিয়েছে। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে ইসাইয়াসের আঘাতে অন্তত দু’জনের প্রাণহানি ঘটে।

ইসাইয়াসের প্রভাবে ভারী বর্ষণ হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে এনএইচসি। একই সঙ্গে নদনদীর পানি উপচে পূর্ব ক্যারোলিনা এবং পূর্ব উপকূলীয় এলাকায় আকস্মিক বন্যা দেখা দিতে পারে সতর্ক করে দেয় সংস্থাটি।

সাউথ ক্যারোলিনার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে এবং নর্থ ক্যারোলিনার দক্ষিণাঞ্চলের উপকূলীয় কিছু কিছু এলাকয়ে এবং তৎসংলগ্ন নৌপথে প্রাণঘাতী ঝড় এবং জলোচ্ছ্বাসের ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা। দুই ক্যারোলিনার পূর্বাঞ্চলের সমুদ্র তীরবর্তী অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাষ দেয়া হয়েছে।

ইসাইয়াস যুক্তরাষ্ট্রের ক্যারোলিনার দিকে ধেয়ে আসার আগে ডোমিনিক্যান রিপাবলিকান ও পুয়ের্তো রিকোতে দু’জনের প্রাণ কেড়েছে। এ সময় ইসাইয়াসের তাণ্ডবে সেখানে ব্যাপক গাছপালা, ঘরবাড়ি ধ্বংস ও রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় পর্যটন এলাকা মির্টল সমুদ্র সৈকত, সাউথ ক্যারোলিনা, উইলমিংটন ও নর্থ ক্যারোলিনার দিকে ছুটছে হারিকেন ইসাইয়াস। মঙ্গলবার পর্যন্ত এসব এলাকায় টর্নেডো সতর্কতা বলবৎ থাকবে বলে জানিয়েছে এনএইচসি।

এদিকে, হারিকেন ইসাইয়েসের কারণে করোনাভাইরাম মহামারি মোকাবিলায় সরকারের নেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। হারিকেন মোকাবিলার পাশাপাশি দেশটির কর্মকর্তারা আশ্রয়কেন্দ্র চালু ও লোকজনের করোনা স্বাস্থ্যবিধি পালনের ব্যাপারে নতুন কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন। তারা প্রত্যেকের সঙ্গে সাবান অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখা, একজনের সঙ্গে অন্যজনের ছয় ফুট দূরত্ব বজায় রাখা এবং দুটি করে মাস্ক রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

এসআইএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]