সালমানের বিরুদ্ধে কানাডায় কিলিং স্কোয়াড পাঠানোর অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৫৭ এএম, ০৭ আগস্ট ২০২০

দেশের সাবেক এক গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের হত্যার উদ্দেশ্যে কানাডায় কিলিং স্কোয়াড পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে সৌদি আরবের ডি-ফ্যাক্টো নেতা ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে। ২০১৮ সালের অক্টোবরে তুরস্কে জামাল খাশোগিকে হত্যার পরপরই করা এই হত্যা পরিকল্পনা অবশ্য ব্যর্থ হয়েছিল।

বিবিসির প্রতিবেদনে খবরটি জানিয়ে বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে দাখিল হওয়া নথিপত্রে এমন অভিযোগ উঠেছে। সালমানের নির্দেশে কানাডায় প্রেরিত ওই কিলিং স্কোয়াডের লক্ষ্য ছিল সাবেক গোয়োন্দা কর্মকর্তা সাদ আল-জাবরিকে হত্যা করা। দীর্ঘদিন সৌদি সরকারের অনুগত হয়ে কাজ করা জাবরি তিন বছর ধরে নির্বাসনে।

ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সুরক্ষার আওতায় তখন থেকে তিনি টরেন্টোতে বাস করছেন। বলা হচ্ছে, কানাডার সীমান্তরক্ষীরা সৌদি থেকে যাওয়া কিলিং স্কোয়াডকে সন্দেহ করায় হত্যা পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়। আদালতের নথি অনুযায়ী, তারা টরেন্টোর পিয়ারসন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর হয়ে কানাডায় প্রবেশের চেষ্টা করেছিলেন।

সৌদি গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে ব্রিটিশ এমআই৬ ছাড়াও পশ্চিমা গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর মধ্যে রিয়াদের সম্পর্কের ক্ষেত্রে মূল ব্যক্তিটি ছিলেন ৬১ বছর বয়সী মোহাম্মদ জাবরি। সেই জাবরির মুখ বন্ধ করার জন্য যুবরাজ সালমান তাকে হত্যার নির্দেশ দেন বলে ওয়াশিংটন ডিসির আদালতে দাখিল নথিতে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

MBS

২০১৫ সালে লন্ডন সফরের সময় তৎকালীন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থেরেসে মে (ডানে) সাদ আল-জাবরিকে (হলুদ বৃত্ত দ্বারা চিহ্নিত) স্বাগত জানাচ্ছেন

আগের ক্রাউন প্রিন্সকে সরিয়ে দেয়া, খাশোগি হত্যায় পাঠানো টাইগার স্কোয়াড, দুর্নীতিসহ আরও নানা স্পর্শকাতর তথ্য আছে জাবরির কাছে। আর তিনি যাতে এসব তথ্য ফাঁস করে দিতে না পারেন সে লক্ষ্যে বিন সালমান তাকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন বলে জাবরি তার করা অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন।

এসএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]