ডুবন্ত দুই নারীকে উদ্ধারে সমুদ্রে পর্তুগালের প্রেসিডেন্ট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৭ এএম, ১৮ আগস্ট ২০২০

সমুদ্রে নেমেছিলেন দুই নারী। আচমকা তাদের কায়াকটি (হস্তচালিত ছোট নৌযান) তলিয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। বিপদে পড়ে যান তারা। দূর থেকে এই দৃশ্য দেখে পানিতে নেমে পড়েন মার্সেলো রেবেলো ডি সুজা। ৭১ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি ইউরোপের দেশ পর্তুগালের প্রেসিডেন্ট। খবর বিবিসির।

সোমবার আলগ্রেভ সৈকতে কায়াকে ঘুরছিলেন ওই দুই নারী। আচমকা তারা জটিলতায় পড়ে যান। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে তাদেরকে বাঁচাতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন স্বয়ং দেশের প্রেসিডেন্ট। সাঁতরিয়ে তার এই উদ্ধার অভিযানের ছবি প্রকাশিত হয়েছে সামাজিক মাধ্যমসহ মূলধারারা গণমাধ্যমগুলোতে।

স্থানীয় পর্যটন খাতের উন্নয়নে আলগ্রেভে ছুটি কাটাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডি সুজা। দুই নারীকে উদ্ধারের এই ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে তিনি পরে সাংবাদিকদের বলেন, সৈকতে সমুদ্রের ঢেউয়ের কারণে কায়াকটির সঙ্গে দুই নারীকেও ডুবতে দেখে তিনি তাদের উদ্ধারে পানিতে নেমে পড়েছিলেন।

বিপদ আঁচ করতে পেরে সাহায্যের জন্যে এগিয়ে যান তিনি। ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, ডুবন্ত দুই নারীকে উদ্ধারে পানিতে নেমেছে সাঁতরাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডি সুজা। অপর এক ব্যক্তিও তাকে সাহায্য করেন। তার সহযোগিতায় দুই নারীসহ কায়াকটি উপকূলে নিয়ে আসা হয়।

প্রেসিডেন্ট সুজা ঘটনা সম্পর্কে বলেন ‘তখন পশ্চিমের ঢেউগুলো ছিল খুবই বিশাল। ঢেউয়ের তোড়ে তারা ভেসে উল্টে যায়। এছাড়া সেখানে তখন প্রচুর পানি। এমনকি তারা কায়াকটি ঘুরিয়ে ফের উপকূলে আনতে কিংবা এর উপরে উঠতেও পারছিল না। এতটাই গতি ছিল ঢেউয়ের।’

Portugal

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘পাশের একটি সৈকত থেকে এসেছিল ওই নারীরা। তবে জেট স্কি নিয়ে সে সময় সাহায্য করতে আসা অপর ‘দেশপ্রেমিক’ ব্যক্তির কথাও উল্লেখ করেন তিনি। ভবিষ্যতে সৈকত ভ্রমণের ক্ষেতে নারীদের আরও সচেতন থাকা উচিত বলে সতর্ক করে দেন প্রেসিডেন্ট ডি সুজা।

এসএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]