তুরস্কের সঙ্গে ঝামেলা করো না, ফ্রান্সকে হুঁশিয়ারি এরদোয়ানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৫ এএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের জেরে তুরস্কের সঙ্গে গণ্ডগোল না করতে ফ্রান্সকে সতর্ক করল তুরস্ক। বিরোধ বাঁধলে তার জন্য ফ্রান্সকে বড় মূল্য দিতে হবে বলেও কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান।

শনিবার ইস্তানবুলে টেলিভিশনের এক ভাষণে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমান্যুয়েল ম্যাক্রোঁর উদ্দেশে এরদোয়ান বলেন, ‘(গণ্ডগোল হলে) আমার সঙ্গে আপনার আরও অনেক সমস্যা হবে। তুর্কি জনগণের সঙ্গে গণ্ডগোল করবেন না। তুরস্কের সঙ্গে গণ্ডগোল করবেন না।’

ঔপনিবেশিক ইতিহাস বিবেচনা করলে তুরস্কের সমালোচনার কোনও অধিকার ফ্রান্সের নেই বলেও মন্তব্য করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

গত শুক্রবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ইউরোপকে এরদোয়ান সরকারের কর্মকাণ্ড নিয়ে আরও ‘পরিষ্কার ও দৃঢ়’ হতে হবে। পূর্ব ভূমধ্যসাগরে তুরস্কের সঙ্গে সাম্প্রতিক দ্বন্দ্বে শুরু থেকেই গ্রিসের পক্ষ নিয়েছে ফ্রান্স। লিবিয়ার ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা নিয়েও বিরোধ চলছে ফ্রান্স-তুরস্কের মধ্যে।

তুর্কি প্রেসিডেন্টকে ‘রেড লাইন’ অতিক্রম না করতে সতর্ক করে দিয়েছেন ম্যাক্রোঁ। ইতোমধ্যেই পূর্ব ভূমধ্যসাগরের বিরোধপূর্ণ অঞ্চলে রণতরি ও যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে ফ্রান্স।

গত আগস্টে গ্যাস অনুসন্ধানে ভূমধ্যসাগরে একটি অনুসন্ধানী জাহাজ এবং এর সঙ্গে ছোটখাটো একটি যুদ্ধজাহাজের বহর পাঠায় তুরস্ক। সাগরের ওই এলাকাটিকে নিজেদের বলে দাবি করে গ্রিস। তবে তুরস্ক বলছে, সেখানে গবেষণার সমান অধিকার রয়েছে তাদেরও।

এ নিয়ে প্রায় যুদ্ধ অবস্থা বিরাজ করছে দুই দেশের মধ্যে। বিরোধের মধ্যে অঞ্চলটিতে একাধিকবার সামরিক মহড়া চালিয়েছে তুরস্ক। গ্রিসও তাদের সামরিক শক্তি বাড়াতে বিশাল কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

সূত্র: আল জাজিরা
কেএএ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]