ভারতের সংসদে নজিরবিহীন নাটকীয়তার মাঝে কৃষি বিলে রাষ্ট্রপতির সই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৬ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

ভারতজুড়ে কৃষকদের তীব্র প্রতিবাদ ও সংসদে নজিরবিহীন বিক্ষোভ-হট্টগোলের মধ্যে পাস হওয়ার সপ্তাহ খানেকের মধ্যে তিনটি কৃষি সংস্কার বিলে সই করেছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বিরোধিতা করে কণ্ঠ ভোটে পাশ হওয়া বিলে সই না করার জন্য রাষ্ট্রপতিকে আহ্বান জানিয়েছিলেন বিরোধীরা। কিন্তু সেই আবেদনে সাড়া দেননি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

এক সপ্তাহ আগে গত রোববার দেশটির সংসদের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় দু’টি কৃষি বিল ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। সংসদে বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি ডেপুটি চেয়ারম্যানের টেবিলের সামনে গিয়ে তিনটি মাইক্রোফোন ভাঙচুর এবং রুল বুক ছেঁড়ার অভিযোগ উঠেছিল বিরোধী সাংসদদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার জেরে আট সাংসদ সাসপেন্ড হয়ে ধর্নায় বসেছিলেন। প্রতিবাদে রাজ্যসভা বয়কট করেন বিরোধী সাংসদরা। বিরোধীশূন্য রাজ্যসভাতেই পাশ হয়ে যায় তৃতীয় কৃষি বিলটিও।

বিরোধীদের অভিযোগ, রাজ্যসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় বিরোধীদের আপত্তি কানে তোলেনি নরেন্দ্র মোদির বিজেপি সরকার। গত রোববার বিরোধী দলীয় সাংসদরা ভোটাভুটির দাবি জানালেও ডেপুটি চেয়ারম্যান তা না মেনে কণ্ঠ ভোটে পাশ করিয়ে দেন ওই দু’টি বিল। বিল পাশের ক্ষেত্রে সংসদীয় রীতি মানা হয়নি বলেও অভিযোগ ছিল কংগ্রেস, তৃণমূল, সিপিএম-সহ দেশটির বিরোধী দলগুলোর। এই অভিযোগ এনে রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের কাছে লেখা চিঠিতে বিলে সই না করার আহ্বান জানিয়েছিলেন তারা।

পশ্চিমবঙ্গের বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার বলছে, সংসদে পাশ হওয়া কৃষি সংস্কার বিলের বিরোধিতায় দেশজুড়ে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ করছেন কৃষকরা। পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ-সহ দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে কৃষি বিলের বিরোধিতায় টানা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা।

রোববারও দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ-অবরোধ পালন করেছেন তারা। এই তিনটি কৃষি বিলের কারণে এনডিএ জোট ছেড়েছে বিজেপির সবচেয়ে পুরনো শরিক পাঞ্জাবের শিরোমণি আকালি দল।

এসআইএস/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]