ইসরায়েল-বাহরাইনের কূটনৈতিক সম্পর্কের আনুষ্ঠানিক সূচনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:২৩ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০২০

ইসরায়েল এবং বাহরাইনের কূটনৈতিক সম্পর্কের আনুষ্ঠানিক সূচনা হচ্ছে। রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার দিকে বাহরাইনের রাজধানী মানামায় মার্কিন এক প্রতিনিধি দলের উপস্থিতিতে দুই দেশের সরকারি কর্মকর্তাদের বৈঠকের মাধ্যমে এই সম্পর্কের সূচনা হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলি এক কর্মকর্তা।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পর গত মাসে হোয়াইট হাউসে সংযুক্ত আরব আমিরাত-বাহরাইন এবং তেলআবিব শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করে।

ইসরায়েলি এক কর্মকর্তা বলেন, ইসরায়েলের প্রতিনিধি দল এবং বাহরাইনের কর্মকর্তারা একটি যৌথ ইশতেহারে স্বাক্ষর করবেন। এই ইশতেহার স্বাক্ষরের মাধ্যমে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের যাত্রা পুরোদমে শুরু হবে।

তিনি বলেন, রোববার সন্ধ্যার দিকে এই যৌথ ইশতেহারের স্বাক্ষরের কথা রয়েছে। এটি সম্পন্ন হলে উভয় দেশই পরস্পরের ভূখণ্ডে নিজেদের দূতাবাস চালু করতে পারবেন।

১৯৭৯ সালে মিসর এবং ১৯৯৪ সালে জর্ডান ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে শান্তি চুক্তিতে পৌঁছানোর পর তৃতীয় এবং চতুর্থ দেশ হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইন একই পথে হাঁটল।

এর আগে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর হোয়াইট হাউসে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার লক্ষ্যে ইসরায়েল-আমিরাত-বাহরাইনের মধ্যে তথাকথিত আব্রাহাম চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নেতৃত্বাধীন প্রশাসনের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে এ দুই দেশ।

যৌথ ইশতেহার স্বাক্ষরের আগে ইসরায়েলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের প্রধান ইয়োশি কোহে মানামায় বাহরাইনের গোয়েন্দাবাহিনীর প্রধানের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কাজে পরস্পরের সহযোগিতা ও সমর্থন অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয়।

সূত্র: আলজাজিরা।

এসআইএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]