নিউইয়র্কে অবৈধ অভিবাসী ধরতে অভিযান, ৫৪ জন আটকের পর ৩০ জন মুক্ত

কৌশলী ইমা কৌশলী ইমা , যুক্তরাষ্ট্র
প্রকাশিত: ০২:০৭ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক শহরকে অবৈধ অভিবাসীদের অভয়ারণ্য হিসেবে চিহ্নিত করেছেন মার্কিন ইমিগ্রেশন এবং শুল্ক প্রয়োগকারী (আইস) কর্মকর্তারা। এ কারণেই স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) এক ঝটিকা অভিযান চালিয়ে বৃহত্তর নিউইয়র্ক শহরের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ৫৪ জনকে পাকড়াও করা হয়েছে। তবে পরে ৩০ জনেরও বেশি ব্যক্তিকে ছেড়ে দেয়া হয়।

চলতি অক্টোবরের শুরুর দিকে কয়েকশ’ অবৈধ অভিবাসী অন্য অঙ্গরাজ্য থেকে নিউইয়র্কে এসে আশ্রয় নিয়েছেন বলে খবর পেয়ে আইস কর্মকর্তারা এ অভিযান চালিয়েছেন। নিউইয়র্কের মত অবৈধ অভিবাসীদের অন্য অভয়ারণ্য শহরগুলোতেও তারা একই ধরনের অভিযান চালাবেন।

আইস কর্মকর্তাদের হাতে আটক অভিবাসীদের বিরুদ্ধে জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। ওই সূত্র জানায়, আটক বেশিরভাগ ব্যক্তির বিরুদ্ধে সম্প্রতি হামলা, শিশুর যৌন নির্যাতন, ধর্ষণ, ভারী আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার, চুরি, সম্পত্তি দখল, মাদক ব্যবসা, মাদক সেবনের পর গাড়ি চালানো, ডাকাতি এবং গ্র্যান্ড লারসিনির মতো অভিযোগ রয়েছে।

আটক ৫৪ ব্যক্তির মধ্যে ৩০ জনেরও বেশি ব্যক্তিকে স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী হেফাজত থেকে মুক্তি দেয়া হয়েছে এবং বাকিদের আইসের হেফাজতে আটক রাখার জন্য স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

নিউইয়র্কের আইস ইআরও ফিল্ড অফিসের পরিচালক টমাস আর ডেকার বলেছেন, বৃহত্তর নিউইয়র্ক অঞ্চলে আটক সমস্ত ব্যক্তির মধ্যে কেবল দুজনেরই যুক্তরাষ্ট্রে অপরাধের কোনো ইতিহাস ছিল না। বাকি বেশিরভাগ ব্যক্তির অপরাধমূলক ইতিহাস রয়েছে। এ বিষয়টি আমরা পরিষ্কার করে বলতে পারি। এটা ভীতিজনক যে নিউইয়র্ক সিটির রাজনীতিবিদরা এমন আইন তৈরি করেছেন যা স্থানীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলিকে তাদের অপরাধের গুরুতরতা সত্ত্বেও বিপজ্জনক অপরাধীদের সমাজে ফিরিয়ে দিতে বাধ্য করে।

আটক অভিবাসীরা চীন, ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র, ইকুয়েডর, এল সালভাডর, গুয়াতেমালা, গ্রেনাডা, গায়ানা, হন্ডুরাস, আয়ারল্যান্ড, জামাইকা, মেক্সিকো, মোল্দোভা, মোজাম্বিক, পাকিস্তান, পানামা, পেরু এবং সেন্ট লুসিয়ার নাগরিক।

আইস কর্মকর্তারা নিউইয়র্ক সিটির পাশাপাশি নাসাও, সাফলক, ডাচেস, আলস্টার এবং ওয়েস্টচেস্টারের প্রতিবেশী কাউন্টিগুলোতেও এই অভিযান চালিয়েছেন।

অনিবন্ধিত অভিবাসীরা অভিবাসন বিচারকের সামনে তাদের অপসারণের প্রক্রিয়াটির ফলাফল মুলতবি রেখে আইস হেফাজতে থাকবে বলে জানিয়েছেন।

এইচএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]