ট্রাম্পের এইচ-১বি ভিসার নতুন নিয়মের বিরুদ্ধে মামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৩ এএম, ২২ অক্টোবর ২০২০

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এইচ-১বি ভিসার নতুন নীতিমালার বিরোধিতায় মামলা দায়ের হয়েছে। সোমবার কলম্বিয়া জেলা আদালতে ১৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এ মামলা দায়ের করে।

মামলার পর তারা দাবি করেছে, এই নতুন আইন বা নীতি একেবারেই ভুলেভরা এবং স্ববিরোধী। এর ফলে এমন আইনের উদ্দেশ্য আদৌ সফল হবে না।

মামলাকারীদের মতে, এই আইনে মার্কিন অর্থনীতি লাভের মুখ দেখবে না, বিশেষ সুবিধা হবে না ভিসাধারী চাকরিজীবীদেরও।

গত জুন মাসে হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল, অভিবাসী নন এমন যারা এইচ-১বি ভিসাসহ অন্যান্য ইমিগ্র্যান্ট ভিসার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করতে চান তাদের আপাতত আর ভিসা দেয়া হবে না। এই বিষয়ে তখন বিতর্ক দানা বাঁধে।

এরপর এইচ-১বি ভিসার মতো আরও কয়েকটি ওয়ার্ক-ভিসায় আমেরিকায় কর্মরত বিদেশিদের বেতন সংক্রান্ত ওই খসড়া নীতি চলতি মাসের গোড়ায় পেশ করেছিল মার্কিন শ্রম বিভাগ।

হোয়াইট হাউজ তখনই দাবি করেছিল, এতে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবেন ভিসাধারীরা। শ্রম বিভাগের পক্ষ থেকে বলা হয়, সস্তায় বিদেশি কর্মী সহজলভ্য হলেই যাতে কর্মরতদের চাকরি বা বেতনে কোপ না পড়ে, তা নিশ্চিত করবে নতুন নীতি।

কিন্তু বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্যবিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও যেহেতু নতুন নিয়মকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে গেছে, তাই তা কার্যকর হওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠছেই। সুবিধা তো নয়ই, নতুন নীতিতে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রের অর্থনীতিতে ধাক্কা আসবে বলেই মনে করছেন মামলাকারীরা।

সাধারণত আমেরিকার তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানিতে কর্মীরা এইচ-১বি ভিসা ব্যবহার করে থাকেন। দেশটির এসব সংস্থায় কর্মরত তথ্যপ্রযুক্তিকর্মীদের বেশিরভাগই ভারত এবং চীনের নাগরিক।

চলতি বছরের জুনে এইচ-১বি ভিসা স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছিল মার্কিন প্রশাসন। গত ৩ আগস্ট এই ভিসা স্থগিতের নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]