সৌদির কাছে অস্ত্র বিক্রিতে ফের আইনি জটিলতায় যুক্তরাজ্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৬ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০

সৌদি আরবের কাছে আবারও অস্ত্র বিক্রি নিয়ে ব্রিটিশ সরকারের সিদ্ধান্ত বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনার আবেদন করেছে এর বিরোধীরা।

দ্য ক্যাম্পেইন এগেইনস্ট আর্মস ট্রেড (সিএএটি) বলছে, সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি ইয়েমেনে চলমান সহিংসতা দীর্ঘস্থায়ী করবে এবং এতে ধ্বংসযজ্ঞ আরও বাড়বে।

দারিদ্র্যপীড়িত ইয়েমেনে দীর্ঘদিন ধরে চলমান যুদ্ধের একপক্ষে রয়েছে সৌদির নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট। ইতোমধ্যেই এ সহিংসতায় দেশটিতে হাজার হাজার নিরীহ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

গত মাসে জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ইয়েমেন যুদ্ধে জড়িত সশস্ত্র দলগুলো যুদ্ধাপরাধে সহায়তার কারণ হতে পারে। এছাড়া, সেখানে গুরুতর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন লঙ্ঘনের নথিভুক্ত নিদর্শন রয়েছে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

২০১৯ সালের জুনে সিএএটি’র আরেক মামলায় ব্রিটিশ আপিল আদালত সৌদি আরবে যুক্তরাজ্যের অস্ত্র বিক্রিকে বেআইনি আখ্যা দিয়ে রুল জারি করেন। ব্রিটিশ মন্ত্রীরা বেসামরিক মানুষের ঝুঁকি বিবেচনা না করেই অবৈধভাবে অস্ত্র রপ্তানির চুক্তি করেছিলেন বলেও ঘোষণা দেন আদালত।

সেসময় যুক্তরাজ্যের তৎকালীন আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মন্ত্রী লিয়াম ফক্সকে সৌদি আরবের সঙ্গে অন্তত ৪৭০ কোটি পাউন্ডের অস্ত্র চুক্তি তাৎক্ষণিক পর্যালোচনার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল এবং দেশটিতে নতুন অস্ত্র বিক্রি স্থগিত করেছিল ব্রিটিশ সরকার।

তবে চলতি বছরের জুলাইয়ে সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি ফের শুরু করে যুক্তরাজ্য।

ইয়েমেনে বিমান হামলার বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনায় মানবাধিকার আইন লঙ্ঘন হয়েছে, এমন একটি পর্যালোচনার ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ব্রিটিশ সরকার।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

কেএএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]