দীর্ঘ অপেক্ষা শেষে ফের বাংলাদেশ-ভারত বিমান চালু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০৭ এএম, ২৮ অক্টোবর ২০২০

প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ ছিল টানা ৭ মাস ১০ দিন। করোনার কারণে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত বিমান যাতায়াত করছিল না। তবে দীর্ঘ সময় পর বুধবার থেকে তা আবার চালু হয়ে যাচ্ছে। বুধবার সকালেই ঢাকা থেকে কলকাতায় নামবে যাত্রীবাহী বিমান।

দেশজুড়ে লকডাউন জারি হওয়ার আগে, গত ১২ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে কলকাতা-ঢাকার বিমান যোগাযোগ। ফের তা চালুর সিদ্ধান্তে স্বস্তিতে যাত্রীরা।

ভারতের দমদম বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিট নাগাদ ঢাকা থেকে যাত্রীবাহী বিমান নামবে দমদম বিমানবন্দরে। আর বৃহস্পতিবার থেকে দিল্লি ও চেন্নাই থেকে ঢাকাগামী বিমান যাতায়াত করবে।

আপাতত ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান চলবে দু’দেশের মধ্যে। পরবর্তীকালে ইন্ডিগো-সহ অন্যান্য এয়ারলাইন্স সংস্থার বিমান চালানো হতে পারে। খুব শীঘ্রই সপ্তাহে ৭টি বিমান ঢাকা-কলকাতা আসা-যাওয়া করবে বলে জানা গেছে।

সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী, বাংলাদেশ থেকে যে সমস্ত যাত্রী কলকাতায় আসবেন, তাদের করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ রিপোর্ট সঙ্গে থাকা বাধ্যতামূলক। আরটিপিসিআর টেস্ট করানোর পরই বিমানে ওঠার ছাড়পত্র পাবেন কলকাতা আসতে চাওয়া যাত্রীরা। বিমানে ওঠার আগে যাত্রীদের করোনা রিপোর্ট ওয়েবসাইটে দিয়ে দেয়া বাধ্যতামূলক।

এর আগে, লন্ডন থেকে কলকাতায় যারা আসছেন, তারা অনেকেই করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট নিয়ে আসছেন না। সেক্ষেত্রে কলকাতা বিমানবন্দরে লন্ডন থেকে আসা যাত্রীদের করোনা পরীক্ষা করানো হচ্ছে। ‌গত সপ্তাহ থেকেই তা চালু হয়েছে।

তাতে গত বুধবার ৯ জন যাত্রীর করোনা পরীক্ষা করা হয়। সকলেরই রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে শনিবার যে বিমানটি লন্ডন থেকে কলকাতায় আসে, তাতে একজন যাত্রীর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ ধরা পড়ে। তাকে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

বাকিদেরও পরীক্ষা করিয়ে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। বাংলাদেশের যাত্রীদের একটা বড় অংশই চিকিৎসার প্রয়োজনে কলকাতায় যান। করোনা সংক্রমণ নিয়ে কলকাতায় নামা যাবে না, তা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]