ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানল: ঘর ছেড়েছে প্রায় ১ লাখ মানুষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৩ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ভয়বাহ দাবানল আশপাশের অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ায় ৯০ হাজার ৮০০ জন বাসিন্দাকে তাদের বাড়িঘর ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। দাবানল নিয়ন্ত্রণে প্রায় ৫০০ জন কর্মী কাজ করছেন। তাদের মধ্যে দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

অরেঞ্জ কাউন্টির ফায়ার সার্ভিসের প্রধান শেন শেরউড নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেন, গত সোমবার বাতাসের তীব্র গতির কারণে দাবানল দ্রুত আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এ কারণে অঙ্গরাজ্যের অরেঞ্জ কাউন্টির আরভিন শহরের বাসিন্দাদের তাদের বাড়িঘর ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা বলছেন, গত সোমবার বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় প্রায় ২০ মাইল। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ৮ হাজার একর জায়গাজুড়ে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। আবহাওয়ার উন্নতি হলে আগুন নিয়ন্ত্রণে বিমান ব্যবহারের পরিকল্পনা করে ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ।

লজ এঞ্জেলজের কর্মকর্তারা বলছেন, অরেঞ্জ কাউন্টি ও সান বার্নারদিনোতে দাবানল ছড়িয়ে পড়ায় অরেঞ্জ কাউন্টির পূর্বাঞ্চলীয় শহর ডায়মন্ড বারের দক্ষিণ অঞ্চলের বাসিন্দারের ঘরবাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বলা হয়েছে।

এদিকে হুট করে বাড়ি ছাড়ার নির্দেশ দেয়ায় সেখানকার বাসিন্দারা আরও বিপদে পড়েছেন। আরভিন শহরের বাসিন্দা ৬৭ বছর বয়সী চার্লিন স্টিফেনসন বলেন, গত সোমবার যখন বাড়ি ছাড়ার নির্দেশ আসে তখন তিনি চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। এ সময় তার মোবাইল ফোনে একটি বার্তা আসে। বাড়ি ফেরার পর এক পুলিশ কর্মকর্তা তাকে ও তার ভবনের অন্যান্য বাসিন্দাদের ঘর ছেড়ে চলে যেতে বলেন।

jagonews24

তিনি আরও বলেন, ‘আমি চার বছর ধরে আরভিন শহরে বসবাস করছি। আমার স্বামী মারা গেছে কয়েক বছর আগে। সকালে ঘুম থেকে উঠে আমি ধোঁয়ার গন্ধ পায়। এটা খুবই ভয়ঙ্কর। আমি আগে কখনও এমন বিপদে পড়িনি।’

অরেঞ্জ কাউন্টির ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানায়, গত সোমবার বাতাসের গতিবেগ প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৮০ মাইল পর্যন্ত বাড়ে। এখন পর্যন্ত মোট ৭ হাজার ২০০ একর জায়গাজুড়ে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। দাবানলের কারণে অরেঞ্জ কাউন্টির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করার সময় গুরুতর ২৬ ও ৩১ বছর বয়সী দুই কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

সম্প্রতি ক্যালিফোর্নিয়ায় বিশ্ব রেকর্ড গড়া তাপদাহের মধ্যে ১২ হাজারের বেশি বজ্রপাত থেকে এ দাবানলের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কয়েকশ অগ্নিকাণ্ডের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা চলছে সান ফ্রান্সিসকোর দক্ষিণ ও পূর্বের পাহাড়ি এলাকাগুলোতে। দাবানলের ৫৬০টি অগ্নিকাণ্ডের মধ্যে বেশ কয়েকটি ক্যালিফোর্নিয়ার ইতিহাসে অন্যতম বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা।

ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল মোকাবিলায় ওরেগন, নিউ মেক্সিকো, টেক্সাসের মতো অঙ্গরাজ্যগুলোতে থেকে দমকলকর্মী, পর্যবেক্ষণ বিমান ও গাড়ি পাঠানো হচ্ছে। এরপরও অস্ট্রেলিয়া থেকে ‘বিশ্বসেরা দাবানল মোকাবিলা বাহিনী’ পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছেন গভর্নর নিউসম।

এমএসএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]