বাড়ি অবরুদ্ধ, নামাজে যেতেও বাধা ফারুক আব্দুল্লাহকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ৩০ অক্টোবর ২০২০

ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) নামাজে যেতে ভারত-নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহকে বাধা দেয়া হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

এক টুইটবার্তায় আব্দুল্লাহর দল ন্যাশনাল কংগ্রেস (এনসি) দাবি করেছে, নিজ বাসভবন থেকে বের হওয়ার ক্ষেত্রে তার ওপর বাধানিষেধ করেছে ভারত প্রশাসন। এটা ধর্মচর্চার ওপর হস্তক্ষেপ বলছে এনসি।

টুইটবার্তায় আব্দুল্লাহর দল ন্যাশনাল কংগ্রেস জানায়, ‘জম্মু-কাশ্মির প্রশাসন পার্টির সভাপতি ডা. ফারুক আব্দুল্লাহর বাসভবন অবরোধ করে রেখেছে এবং হযরতবাল দরগায় নামাজে যেতে তাকে বাধা দেয়া হয়েছে। নামাজে, বিশেষ করে ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) মতো একটি শুভ উপলক্ষে এই হস্তক্ষেপের নিন্দা জানাচ্ছে জম্মু-কাশ্মির এনসি।’

গত বছরের আগস্টে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদের অধীন জম্মু-কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেয়ার পর থেকে বন্দি রয়েছেন জম্মু-কাশ্মির ন্যাশনাল কংগ্রেসের (জেকেএনসি) সভাপতি ডা. ফারুক আব্দুল্লাহ।

এদিকে ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে সাবেক এই মুখ্যমন্ত্রীকে দরগায় যেতে বাধা দেয়ার ঘটনায় সমালোচনা করেছেন জম্মু-কাশ্মির পিপল’স ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) প্রধান মেহবুবা মুফতি।

টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘ফারুক সাহেবকে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে হযরতবাল দরগায় নামাজে অংশ নেয়ার ক্ষেত্রে বাধাদান ভারত সরকারের গভীর পীড়াদায়ক চরিত্রেরই বহিঃপ্রকাশ এবং তাদের লোহমুষ্টি শুধু জম্মু-কাশ্মিরের দিকেই ধাবিত হয়। এটা আমাদের ধর্মীয় চর্চার ক্ষেত্রে মারাত্মক লঙ্ঘন এবং অত্যন্ত নিন্দনীয়।’

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া ডটকমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশেষ এই দিনটি উপলক্ষে শ্রী নগরের ডাল লেকের তীরে অবস্থিত হযরতবাল মাজারে যাওয়ার কথা ছিল সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহর। তবে বাসা থেকে বের হতে দেয়া হয়নি তাকে।

তবে সূত্রের বরাত দিয়ে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিরাপত্তাজনিত কারণে এনসি সভাপতিকে বের হতে দেয়নি প্রশাসন।

এদিকে, ঈদে মিলাদুন্নবীর নামাজে যেতে জম্মু-কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহকে বাধা দেয়া হলেও দিনটি উপলক্ষে মুসলিম উম্মাহকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এসআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]