‘ভুল মূর্তি’তে ফুল দিলেন অমিত শাহ, দুধ ঢেলে ‘পবিত্র’ করল তৃণমূল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০১ পিএম, ০৬ নভেম্বর ২০২০

ভারতের আদিবাসী মুক্তিযোদ্ধা ও ধর্মীয় নেতা বিরসা মুণ্ডার প্রতিকৃতিতে মালা দিয়েছিলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপির সাবেক সভাপতি অমিত শাহ। তবে তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, মূর্তিটি বিরসা মুণ্ডার নয়, একজন আদিবাসী শিকারির। তাই বিরসা মুণ্ডা ভেবে অন্যজনকে মালা দিয়ে এই আদিবাসী মুক্তিযোদ্ধাকে অপমান এবং ওই জায়গাকে অপবিত্র করা হয়েছে। এজন্য জায়গাটি দুধ দিয়ে ধুয়ে পবিত্র করেছে তৃণমূল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম কলকাতা২৪ এক প্রতিবেদনে জানায়, বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গ সফরে এসে বাঁকুড়ার পুয়াবাগান চৌরাস্তার মোড়ে বিরসা মুণ্ডার প্রতিকৃতিতে মালা দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পরে শহরের রবীন্দ্র ভবনে দলীয় কর্মসূচীতে অংশ নেন। এমনকি স্থানীয় চতুরডিহি গ্রামে বিভীষণ হাঁসদা নামে এক আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষের বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজন সারেন বিজেপির সাবেক এই সভাপতি।

তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিরসা মুণ্ডা নয়, একজন আদিবাসী শিকারির প্রতিকৃতিতে দিয়েছেন-এই অভিযোগে তিনি বাঁকুড়া সফর শেষ করে ফিরে যাওয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ওই জায়গা গঙ্গাজল ও দুধ দিয়ে পবিত্র করে তৃণমূল।

এ কাজে হাত লাগান দলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরাও। তৃণমূলের ওই কর্মসূচিতে থাকা চতুরডিহি গ্রামের ‘মাঝি’ অমূল্য হাঁসদা বলেন, ‘এই মূর্তিটি বিরসা মুণ্ডার নয়। যেহেতু মূর্তির নিচে কারো নাম লেখা নেই তাই প্রতিবাদ জানাতেও পারিনি। এই মূর্তিতে বিরসা মুণ্ডার নাম করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যেহেতু মালা দিয়েছেন, তাই মনে করি এই জায়গা কলুষিত হয়েছে। সে কারণেই গঙ্গাজল আর দুধ দিয়ে জায়গাটি পবিত্র করা হয়েছে।’

তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরার ভাষ্য, ‘ভগবান পরিবর্তনের খেলায় মেতেছে বিজেপি। বিরসা মুণ্ডা নামে যে মূর্তিতে বিজেপি নেতৃত্ব মালা দিলেন তা ওনার নয়। রাস্তা সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য একজন শিকারির মূর্তি রয়েছে এখানে। আর তাকেই বিরসা মুণ্ডা বলে ওনারা মালা দিলেন। কয়েক দিন পরে হয়তো দুর্গা মুর্তি সরিয়ে রামের মূর্তি বসিয়ে দেবে।

উপস্থিত তৃণমূল নেতা ও জেলা পরিষদের সভাপতি মৃত্যুঞ্জয় মুর্ম্মু বলেন, ‘বিরসা মুণ্ডা দলিতসহ আমাদের আদিবাসী সমাজের কাছে ভগবানস্বরূপ। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একটি মূর্তিতে মালা দিয়ে যেভাবে বিরসা মুণ্ডাকে অপমান করেছেন, তাতে সমগ্র আদিবাসী সমাজ অপমানিত। আমাদের ভুল বোঝানো হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে আমরা আন্দোলন কর্মসূচি দেব।

তবে বিজেপির রাঢ় বঙ্গ জোনের কনভেনর রাজু বন্দোপাধ্যায়ের দাবি, তাদের কার্যক্রম দেখে তৃণমূল ‘প্রচণ্ড ভয় পেয়েছে’। তাই তারা এসব করছে।

বিরসা মুণ্ডার মূর্তি বিতর্ক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ওসব কারা বলছেন জানি না। আমরা জানি, ওটা বিরসা মুণ্ডার মূর্তি। তাই অমিতজী শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। এর পরেও কারো আপত্তি থাকলে আদিবাসী সমাজ তার উত্তর দেবেন।

এসআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]