বাইডেন টিমের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ করছেন ট্রাম্পের সাবেক সহকর্মীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৪৭ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। তবে এখনও হার স্বীকার করেননি রিপাবলিকান নেতা ডোনাল্ড ট্রাম্প। বরং হোয়াইট হাউস দখলে রাখতে নানা চেষ্টা-তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। বর্তমান প্রেসিডেন্টের এমন কর্মকাণ্ডে তার সহযোগীদের মধ্যেই ধীরে ধীরে অসন্তোষ আর বিভ্রান্তি সৃষ্টি হচ্ছে।

ইতোমধ্যেই ট্রাম্প প্রশাসনের বেশ কিছু সাবেক কর্মকর্তা বাইডেনের ট্রানজিশন টিমের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ শুরু করেছেন। বৃহস্পতিবার প্রভাবশালী মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী নিশ্চিত হলেও দেশটির সাধারণ পরিষেবা প্রশাসন (জিএসএ) জো বাইডেনের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করেনি। ফলে নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ও তার ট্রানজিশন টিম বিভিন্ন ফেডারেল এজেন্সির সঙ্গে যোগাযোগ, নতুন প্রশাসনে কর্মকর্তা নিয়োগে প্রয়োজনীয় তহবিল এবং গোয়েন্দা সংস্থার গোপন তথ্যাদি থেকে এখনও বঞ্চিত। এর মধ্যেই বাইডেনের টিমের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ শুরু করেছেন হোয়াইট হাউসের সাবেক কর্মকর্তারা।

jagonews24

ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক এক কর্মকর্তা সিএনএন’কে জানিয়েছেন, তারা বাইডেনের টিমের সঙ্গে এই যোগাযোগকে দলীয় বিবেচনার ঊর্ধ্বে দেশের প্রতি দায়িত্বের অংশ হিসেবে দেখছেন।

যদিও দুই পক্ষের মধ্যে এই আলোচনা আনুষ্ঠানিক ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়ার মতো অত বড় পরিসরে কিছু নয়। তবে এর মাধ্যমে হোয়াইট হাউসের দায়িত্ব নিতে আগামী দিনগুলোতে বাইডেনের ট্রানজিশন টিমের সদস্যরা কী কী বাধার মুখে পড়তে পারেন, সে সম্পর্কে তারা কিছুটা ধারণা পাচ্ছেন বলে জানিয়েছে সূত্রটি।

কয়েকমাস আগে পদত্যাগ করা হোয়াইট হাউসের আরেক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তিনি নিজেই বাইডেনের টিমের এমন একজনের কাছে ইমেইল করেছেন, যিনি নতুন প্রশাসনে তার মতো একই পদে দায়িত্ব পেতে পারেন। ওই ব্যক্তিকে নিজ থেকেই সহযোগিতা করার প্রস্তাব দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ট্রাম্পের সাবেক এই সহকর্মী।

বাইডেনের ট্রানজিশন টিমের সঙ্গে সাবেক কর্মকর্তাদের যোগাযোগের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ট্রাম্প প্রশাসনের বর্তমান এক কর্মকর্তা। তবে এর মাধ্যমে তাদের কোনও ক্ষতির সম্ভাবনা নেই বলে দাবি করেছেন তিনি।

jagonews24

গোপনে যোগাযোগের বিষয়ে এ কর্মকর্তা বলেন, এটা শুধুই সহযোগিতা করার প্রস্তাব। তারা জানে আমরা কী বলতে চেয়েছি, আর আমরা কোনটা করতে বা বলতে পারব- কোনটা পারব না।

এসব গোপন যোগাযোগ থেকে এখনও ফলদায়ক কোনও আলোচনা হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বাইডেনের টিমের এক জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টাও ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক কর্মকর্তাদের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগের কথা স্বীকার করেছেন। তবে এ বিষয়ে বেশি কিছু বলতে রাজি হননি তিনি।

ট্রানজিশন টিমের আরেক সদস্য বলেছেন, তারা এই যোগাযোগকে স্বাগত জানাচ্ছেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটি ঘটছে অতীতে সুসম্পর্কের জেরে। তবে এগুলো আনুষ্ঠানিক ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়ার ধারেকাছেও নেই।

কেএএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]