মার্চের পর সর্বোচ্চ দাম তেলের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২০

ফার্মাসিউটিক্যাল জায়ান্টদের কাছ থেকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের সুখবর আর যুক্তরাষ্ট্রে জো বাইডেন প্রশাসনের সম্ভাবনা এগিয়ে আসায় সুবাতাস লেগেছে তেলের বাজারে। মঙ্গলবার বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম উঠেছে গত মার্চ মাসের পর থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তথ্যমতে, এদিন ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ১ দশমিক ১৬ মার্কিন ডলার, বা ২ দশমিক ৫ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল বিক্রি হয়েছে ৪৭ দশমিক ২২ ডলারে। দিনের একপর্যায়ে এর দাম উঠেছিল সর্বোচ্চ ৪৭ দশমিক ২৩ ডলার।

গত মার্চে সৌদি আরব-রাশিয়ার মূল্যযুদ্ধের কারণে ব্যাপক দরপতনের পর এটাই ব্রেন্টের সর্বোচ্চ দাম।

মঙ্গলবার দাম বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট বা ডব্লিউটিআইয়েরও। এদিন ৮৮ সেন্ট বা দুই শতাংশ বেড়ে এই তেল বিক্রি হয়েছে প্রতি ব্যারেল ৪৩ দশমিক ৯৪ ডলারে।

চলতি বছর করোনাভাইরাস মহামারির কারণে চাহিদা কমে যাওয়ায় অভূতপূর্ব দরপতন শুরু হয়েছিল তেলবাজারে। তবে গত সোমবার ফার্মা জায়ান্ট অ্যাস্ট্রাজেনেকা জানিয়েছে, প্রাথমিক ট্রায়ালে তাদের করোনা ভ্যাকসিন ৭০ শতাংশ কার্যকর প্রমাণিত হয়েছে। শেষপর্যন্ত এর সাফল্যের হার ৯০ শতাংশে পৌঁছাতে পারে বলে আশার বাণী শুনিয়েছে তারা।

এর আগে ফাইজার-বায়োএনটেক এবং মর্ডানার মতো প্রতিষ্ঠানগুলোও তাদের করোনা ভ্যাকসিন ৯০ শতাংশের বেশি কার্যকর হওয়ার সুখবর জানিয়েছে।

এছাড়া, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসের দখল জো বাইডেনের হাতে ছেড়ে দিতে রাজি হওয়ারও প্রভাব পড়েছে অর্থনীতির বাজারে।

ব্রোকারেজ হাউস পিভিএমের টামাস ভার্গা বলেন, করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার হচ্ছে এবং ক্রমবর্ধমানভবে তা সফল প্রমাণিত হচ্ছে। ফলে আগামী বছর তেলের চাহিদা বৃদ্ধি বাধ্যতামূলক হতে চলেছে।

কেএএ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]