দুই বছর পর ইরানে বন্দি অস্ট্রেলিয়ার শিক্ষাবিদ মুক্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৪ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২০

দুই বছর পর অবশেষে ইরানের জেল থেকে ছাড়া পেলেন শিক্ষাবিদ কাইলি মুর গিলবার্ট। তার মুক্তির জন্য অস্ট্রেলিয়া তিন ইরানি কয়েদিকে ছেড়ে দিয়েছে। বন্দি বিনিময়ের শর্তেই ইরান সরকার ব্রিটিশ-অস্ট্রেলিয়ান এই লেকচারারকে ছেড়ে দিল বলে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আটক করারর তাকে দশ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিল ইরান। মুক্তি পাওয়ার পর গিলবার্ট বলেছেন, ইরানে তার কারাবাসের অভিজ্ঞতা দীর্ঘ ও ভয়ঙ্কর।

মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের লেকচারার গিলবার্ট ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার পাসপোর্ট নিয়ে ইরানে এক সম্মেলনে যোগ দিতে যান। এর পর তিনি যখন ইরান ছাড়তে যান, তখন তাকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। মরুভূমির মধ্যে একটি কুখ্যাত কারাগারে রাখা হলে তাকে সুরক্ষার জন্য বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ বাড়ে।

গিলবার্ট জানিয়েছেন, বন্দি হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার কর্মকর্তারা সমানে তাকে মুক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে গেছেন।

তিনি বলেন, ‘ইরানের মানুষ সাহসী, দয়ালু ও ভালোবাসতে জানেন। তাদের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসাও আছে। কিন্তু আমাকে এখানে অন্যায় সহ্য করতে হয়েছে। তা সত্ত্বেও ইরানের মানুষের প্রতি ভালোবাসা কমেনি।

তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত দুই বছর তাকে অসহ্য কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। কিন্তু সেসব এখন অতীত। তার মুক্তি নিয়ে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গিলবার্ট ধূসর রঙের হিজাব পরে আছেন।

ইরানের গণমাধ্যমের খবর, বিদেশে আটক এক ব্যবসায়ী ও দুই জনের মুক্তির বিনিময়ে ছাড়া হয়েছে গিলবার্টকে। তবে তাদের নাম জানানো হয়নি। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রীও অবশ্য বন্দি বিনিময় নিয়ে কোনো কথা বলেননি।

তিনি শুধু বলেছেন, ‘আমরা সব সময়ই মনে করেছি, গিলবার্টকে অন্যায়ভাবে আটকে রাখা হয়েছিল।’ ইরানে অস্ট্রেলিয়ার রাষ্ট্রদূতও কিছু না জানিয়ে শুধু বলেছেন, গিলবার্ট এখন ভালো আছেন।

এসএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]mail.com