যুক্তরাষ্ট্রকে ‘সবচেয়ে বড় শত্রু’ বললেন কিম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪৪ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০২১

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র তার দেশের ‘সবচেয়ে বড় শত্রু’ এবং প্রেসিডেন্ট যে-ই হোক না কেন, পিয়ংইয়ংয়ের প্রতি ওয়াশিংটনের নীতি পরিবর্তন হবে এমনটা তিনি আশা করেন না। কংগ্রেসে ক্ষমতাসীন ওয়ার্কারস পার্টির উদ্দেশে কিম এসব কথা বলেন। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ’র বরাত দিয়ে বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

ওয়ার্কারস পার্টির এই বিরল কংগ্রেসে কিম উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র ও সামরিক শক্তি বৃদ্ধির প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেছেন। পারমাণবিক সাবমেরিনের পরিকল্পনা প্রায় সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান তিনি।

নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তুতির মধ্যেই কিমের কাছ থেকে এসব মন্তব এলো। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নতুন সরকারের ওপর চাপ তৈরির প্রচেষ্টা হিসেবেই কিম এসব কথা বলেছেন।

মার্কিন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের সুসম্পর্ক ছিল। যদিও তাতে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক প্রকল্পের ব্যাপারে খুব অল্প অগ্রগতিই এসেছিল।

উত্তর কোরিয়ার ইতিহাসে মাত্র অষ্টমবারের মতো ওয়ার্কারস পার্টির কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হচ্ছে। কিম সেখানে বলেন, ‘বিরোধী শক্তি’ তাদেরকে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবহারের পরিকল্পনা না করলে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ইচ্ছা পিয়ংইয়ংয়ের নেই।

তিনি বলেন, ‘আমাদের বিপ্লবে যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে বড় বাধা এবং আমাদের সবচেয়ে বড় শত্রু। ক্ষমতায় যে-ই থাকুক না কেন, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে তাদের নীতির প্রকৃত রূপের পরিবর্তন কখনো হবে না।’

বক্তব্যে অস্ত্র সংগ্রহের ব্যাপারেও ইচ্ছা পোষণ করেন কিম। এগুলোর মধ্যে রয়েছে দূর পাল্লার ব্যালাস্টিক ক্ষেপনাস্ত্র যা ভূমি অথবা সমুদ্র থেকে নিক্ষেপ করা যাবে এবং ‘সুপার-লার্জ ওয়ারহেডস’। উত্তর কোরিয়ার ওপর কঠোর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও দেশটি সামরিক শক্তি বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি আনতে সক্ষম হয়েছে।

গত সপ্তাহে কিম স্বীকার করেন, তার পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা প্রায় প্রতিটি সেক্টরেই লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে।

এমকে/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]