প্রেমের বিয়েতেও যৌতুক দাবি, অভিমানে কনের আত্মহত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৯ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২১
প্রতীকী ছবি

প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিল ১৫ বছরের নাবালিকা। মেয়ের কথা ভেবে পাত্রপক্ষের সঙ্গে বিয়ের কথা বলতে গিয়েছিলেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু বেঁকে বসল প্রেমিক! বিষয়টি জানার পরই চরম সিদ্ধান্ত নিল নাবালিকা। ঘটনাটি ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুরের বংশীহারির।

জানা যায়, ওই নাবালিকার নাম পায়েল সরকার। দীর্ঘদিন ধরেই মিঠুন মহান্ত নামে এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল তার। সম্প্রতি বিষয়টি জানতে পারে পায়েলের পরিবার। পায়েল নাবালিকা হওয়ায় তার বাবা-মা ভেবেছিলেন আপাতত মিঠুনের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে বিয়ে পাকা করে রাখবেন। পরে মেয়ের বয়স ১৮ পেরোলে চার হাত এক করবেন। সেই চিন্তাভাবনা নিয়েই মিঠুনের বাড়িতে যান তারা।

পায়েলের পরিবারের অভিযোগ, যুবকের পরিবারের সদস্যরা পায়েলের বাবা-মায়ের কাছে মোটা টাকা পণ দাবি করেন। টাকা না দিলে ছেলের অন্যত্র বিয়ে দেবেন বলেও জানান তারা। মিঠুন অন্য একটি মেয়ের ছবি দেখিয়ে জানায় সে তাকেই বিয়ে করবে।

বাড়ি ফিরে গোটা বিষয়টা পায়েলকে জানান তার বাবা-মা। সূত্রের খবর, সেই থেকেই চুপচাপ হয়ে যায় নাবালিকা। বৃহস্পতিবার রাতে খাওয়া-দাওয়া সেরে নিজের ঘরে ঘুমোতে চলে যায় সে। এরপর শুক্রবার সকালে উদ্ধার হয় তার ঝুলন্ত দেহ। খবর পাওয়া মাত্রই দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। নাবালিকার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে মিঠুন ও তার পরিবারের সদস্যদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জেএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]