অফিসের শেষদিনে বাইডেনের জন্য ‘প্রার্থনা’ করতে বললেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০৪ এএম, ২০ জানুয়ারি ২০২১

শপথ নেয়ার জন্য ইতোমধ্যে ওয়াশিংটনে পৌঁছেছেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তার শপথ অনুষ্ঠানে থাকছেন না পূর্বসুরী ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে প্রেসিডেন্ট হিসেবে অফিসের শেষ দিনে মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) প্রথমবারের মতো পরবর্তী প্রশাসনের সাফল্যের জন্য জনগণকে ‘প্রার্থনা’ করতে বলেছেন তিনি।

নির্বাচনে পরাজয়ের পর গত এক সপ্তাহ ধরে দেখা মিলছিল না ডোনাল্ড ট্রাম্পের। অবশেষে এক ভিডিওবার্তায় নীরবতা ভেঙে বিদায়ী বক্তব্য দিয়েছেন তিনি। যা পরবর্তীতে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

সেই ভিডিওবার্তায়ই দায়িত্ব গ্রহণের অপেক্ষায় থাকা বাইডেন প্রশাসনের সাফল্যের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের জনগণকে ‘প্রার্থনা’ করতে বলেছেন ট্রাম্প। যদিও এর আগে ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ এনেছিলেন তিনি ও তার সমর্থকরা।

তবে, এখন পর্যন্ত ব্যক্তিগতভাবে বাইডেনকে অভিনন্দন কিংবা প্রচলিত রীতি অনুযায়ী ওভাল অফিসে চায়ের নিমন্ত্রণ করেননি ট্রাম্প।

এদিকে, বাইডেনের শপথকে কেন্দ্র করে হোয়াইট হাউসের বাইরে ওয়াশিংটন শহরে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে জনসাধারণের উপস্থিতিতে রাখা হয়েছে কড়াকড়ি। শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে থাকবেন ন্যাশনাল গার্ড সদস্যরা।

তবে নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ গ্রহণকে ঘিরে গত ৬ জানুয়ারির মতো ওয়াশিংটনে উগ্র ডানপন্থী হামলার আশঙ্কাও করা হচ্ছে। এজন্য মোতায়েন করা হয়েছে সেনাবাহিনীর সশস্ত্র সদস্যদের। নিরাপত্তা বিবেচনায় ‘সবুজ’ ও ‘লাল’ এই দুইভাগে ভাগ করা হয়েছে বিভিন্ন এলাকাকে।

শপথ নেয়ার জন্য নিজ শহর উইলমিংটন ছাড়ার আগে বাইডেনকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। এ সময় সেখানে এক আবেগঘন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সেখানে দেয়া বক্তব্যে নিজের প্রয়াত সন্তানকে স্মরণ করেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এসএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]