‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান শুনেই বক্তৃতা বন্ধ করলেন মমতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫৪ এএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২১

কলকাতায় নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেয়ায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তৃতা বন্ধ করে দিয়েছেন মুখমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যয়। ক্ষুব্ধ মমতা বলে ওঠেন— ‘আমন্ত্রণ জানিয়ে এভাবে বেইজ্জতি করা উচিত নয়।’

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভিক্টোরিয়ায় মেমোরিয়ালে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। কলকাতার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও ছিলেন অনুষ্ঠানে। বিজেপি কর্মীদের জয় শ্রীরাম স্লোগানে মমতা মেজাজ হারানোর পর অনুষ্ঠানে আর তাল ফেরেনি।

আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মজয়ন্তী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে মঞ্চে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যয়। শুরু থেকেই অনুষ্ঠান চলছিল যথানিয়মেই। ছিল শ্রদ্ধা ও গাম্ভীর্যও। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক বক্তৃতা করার জন্য মমতার নাম ঘোষণার পরই ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে শুরু করে।

এতে ক্ষুব্ধ হন মমতা। বক্তৃতার জন্য মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় সরকারি অনুষ্ঠানের একটা শালীনতা থাকা উচিত। এটা কোনো রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি নয়। এটা সমস্ত দলেরই কর্মসূচি। জনতার কর্মসূচি।’

তবে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানোয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাতে ভোলেননি তিনি। মমতা বলেন, ‘আমাকে এখানে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। কিন্তু কাউকে আমন্ত্রণ করে বেইজ্জতি করাটা শোভনীয় নয়। এর প্রতিবাদে আমি এখানে আর কিছু বলছি না।’

‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান নিয়ে বছর দুয়েক আগে প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মমতা। গাড়ি থামিয়ে নেমে স্লোগানকারীদের সরাসরি চ্যালেঞ্জও জানিয়েছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি কোচবিহারে আবার তাকে লক্ষ্য করে ওই স্লোগান দেয়া হলেও মমতা তাতে কর্ণপাত করেননি। তবে এবার সরকারি অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানে মমতা ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

এদিকে অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার আগেই তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদ সদস্য অভিনেত্রী নুসরত জাহান এনিয়ে ক্ষোভ জানিয়ে টুইট করেছেন। টুইটে তিনি লেখেন, ‘নেতাজির জন্মজয়ন্তীর সরকারি অনুষ্ঠানে ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক স্লোগান দেয়ার তীব্র নিন্দা করছি। রাম নাম বলা হোক একে অপরকে আলিঙ্গন করে। গলা টিপে নয়।’

এএএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]