বাইডেনের অভিবাসী বহিষ্কারের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আদালত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৪০ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের অনুমোদনহীন অভিবাসীদের বহিষ্কার করার কার্যক্রম ১০০ দিন পর্যন্ত স্থগিত রাখার যে নির্বাহী আদেশ প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দিয়েছিলেন তা স্থগিত করতে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির এক ফেডারেল আদালত। খবর আল জাজিরার।

সাউদার্ন ডিস্ট্রিক্ট অব টেক্সাসের জেলা জজ ড্রিউ টিপটন মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। এই জজকে নিয়োগ দিয়েছিলেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আদালতের এই আদেশের ফলে পুরো যুক্তরাষ্ট্রে আগামী ১৪ দিন পর্যন্ত বাইডেনের আদেশ স্থগিত থাকবে।

টিপটন বলেন, অভিবাসী বহিষ্কার কার্যক্রম ১০০ দিন স্থগিত রাখার পক্ষে বাইডেন প্রশাসন কোনো শক্তিশালী, যৌক্তিক ন্যায্যতা প্রমাণ করতে পারেনি।

উভয় পক্ষই এ বিষয়ে সংক্ষিপ্ত বিবরণ জমা দেয়ার পর আদালতের এই আদেশের বিরুদ্ধে বাইডেন প্রশাসন আপিল করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জো বাইডেন তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি অভিবাসী বহিষ্কার কার্যক্রম ১০০ দিন পর্যন্ত বন্ধ রাখবেন। দায়িত্ব নেয়ার পরপরই নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে তিনি তার কথা রাখেন। ট্রাম্পের অভিবাসী নীতির সঙ্গে বাইডেন প্রশাসনের এই নীতি পুরোপরি সাংঘর্ষিক।

টিপটনের এই আদেশ বাইডেন প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রথম কোনো আইনী চ্যালেঞ্জ। যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নিয়ে বাইডেনের আরও পরিকল্পনা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে আছে অভিবাসন আইনজীবীদের পরামর্শ অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের অবৈধ এক কোটি ১০ লাখ অভিবাসীকে বৈধতা দেয়া।

বাইডেন গত বুধবার দায়িত্ব গ্রহণের পর মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ একটি মেমো জারি করে যেখানে কিছু নির্দিষ্ট অভিবাসীদের বহিস্কার স্থগিত করতে নির্দেশ দেয়া হয়। মহামারীর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে এই বিভাগের কার্যক্রমের চ্যালেঞ্জ আরও ভালোভাবে মোকাবিলা করতে এই আদেশ দেয়া হয় বলে উল্লেখ করা হয়।

শুক্রবার থেকে এই আদেশ কার্যকর হয় এবং নভেম্বরের আগে অনুমতি ছাড়া যারা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেছে তাদের প্রায় সকলেই এই স্থগিতাদেশের আওতায় পড়েছে।

বাইডেনের এই আদেশের বিরুদ্ধে ওইদিনই আইনী অভিযোগ দায়ের করা হয়। টেক্সাসের অ্যাটর্নি জেনারেল কেন প্যাক্সটন বলেন, এই স্থগিতাদেশ কার্যকর হলে অঙ্গরাজ্য অপূরণীয় ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

এমকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]