ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যুতে দ্বি-রাষ্ট্র সমাধানের প্রস্তাব বাইডেনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২১ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

জাতিসংঘে নিয়োজিত যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত প্রতিনিধি রিচার্ড মিলস বলেছেন, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মধ্যপ্রাচ্য নীতি হবে ‘পারষ্পরিক সম্মতির ভিত্তিতে দ্বি-রাষ্ট্র সমাধান, যেখানে একটি টেকসই ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের পাশে ইসরায়েল শান্তিপূর্ণভাবে ও নিরাপদে থাকবে।’ জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে দেয়া বক্তব্যে মিলস এসব কথা বলেন। খবর আল জাজিরার।

এ প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট মনে করেন দ্বি-রাষ্ট্র সমাধানই এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র পথ।’

মিলস জানান, বাইডেন প্রশাসন ফিলিস্তিনকে দেয়া সাহায্য পুনরায় চালু ও কূটনৈতিক সম্পর্ক পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে চান যা ট্রাম্প প্রশাসন বন্ধ করে দিয়েছিল। এছাড়া অন্য রাষ্ট্রের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক স্বাভাবিক করতেও বাইডেন প্রশাসন প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।

মিলস বলেন, ‘এই লক্ষ্যগুলো পূরণে বাইডেন প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের পাশাপাশি ও ইসরায়েলিদের সম্পর্কও শক্তিশালী করতে কাজ করবে। সেইসাথে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ফিলিস্তিনি নেতৃত্ব ও ফিলিস্তিনি জনগণের সম্পর্ক উন্নত হওয়ার বিষয়গুলোও এতে অন্তর্ভূক্ত হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সাবেক প্রশাসনের দ্বারা বন্ধ হয়ে যাওয়া ফিলিস্তিনি জনগণের অর্থনৈতিক ও মানবিক উন্নয়নে অর্থ সাহায্য প্রকল্প এবং কূটনৈতিক সম্পর্ক আবার চালু করতে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অবস্থান সুস্পষ্ট।’

ট্রাম্পের ফিলিস্তিন নীতিতে বাইডেন প্রশাসন কী পরিবর্তন আনবে, এই ঘোষণা তার একটি সূচনা। ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন ইসরায়েল ও এর প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে ব্যাপক সমর্থন দিয়েছিল। কখনো কখনো তা ফিলিস্তিনের অধিকার খর্ব করে দেয়া হয়েছে।

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যুতে পূর্বসূরী ডেমোক্র্যাট প্রশাসনের যে অবস্থান ছিল, বাইডেন সে তুলনায় মধ্যবর্তী অবস্থান গ্রহণ করবেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

এমকে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]