ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত হচ্ছে ইসরায়েল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে ইসরায়েল নতুন পরিকল্পনা শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা। তেহরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র পরমাণু চুক্তিতে ফিরলে সেটি মস্ত বড় ভুল হবে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি।

মার্কিন পররাষ্ট্রনীতি নিয়ে ইসরায়েল থেকে এধরনের মন্তব্য খুবই বিরল। এটি নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জন্য মধ্যপ্রাচ্য নীতি নিয়ে ইসরায়েলের একটি সতর্কবার্তা বলে মনে করছেন অনেকে।

মঙ্গলবার তেল আবিব ইউনিভার্সিটির একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে ইসরায়েলি লেফটেন্যান্ট জেনারেল আবিব কোহাবি বলেছেন, ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তিতে ফেরা অথবা কিছুটা পরিমার্জন করে একই ধরনের চুক্তি হওয়া কৌশলগত দিক থেকে খারাপ এবং ভুল।

২০১৮ সালে বাইডেনের পূর্বসূরী ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে হওয়া ওই চুক্তি থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নেন। যুক্তরাষ্ট্রের এ পদক্ষেপকে সেসময় স্বাগত জানিয়েছিল পুরনো মিত্র ইসরায়েল। তবে ইরান ইস্যুতে নতুন মার্কিন প্রশাসনের দৃষ্টিভঙ্গিতে চিন্তিত হয়ে উঠেছে দেশটি।

অবশ্য বাইডেন প্রশাসনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন মঙ্গলবারও মার্কিন মিত্রদের আশ্বস্ত করেছেন, ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তিতে ফেরা থেকে এখনও অনেক দূরে যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি আগে কী ব্যবস্থা নেয় তা দেখতে চায় ওয়াশিংটন।

jagonews24

যুক্তরাষ্ট্র পরমাণু চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার পর ধারাবাহিকভাবে ইউরেনিয়ামের মজুত বাড়িয়েছে ইরান; এমনভাবে সেন্ট্রিফিউজ বসিয়েছে, যা চুক্তিবিরোধী হিসেবে বিবেচিত হতে পারে।

কোহাবির দাবি, ইরানের কর্মকাণ্ড দেখে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, তারা দ্রুত পারমাণবিক বোমা তৈরির দিকে এগোচ্ছে। যদিও এধরনের অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করেছে তেহরান।

ইসরায়েলের এ সেনা কর্মকর্তা বলেন, মৌলিক বিশ্লেষণের আলোকে আমি ইতোমধ্যে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীকে বিদ্যমানগুলোর পাশাপাশি আরও কয়েকটি অভিযান পরিকল্পনা প্রস্তুতের নির্দেশ দিয়েছি। সেগুলো প্রয়োগের সিদ্ধন্ত অবশ্যই রাজনৈতিক নেতাদের হাতে, তবে পরিকল্পনাগুলো টেবিলে থাকা দরকার।

সূত্র: রয়টার্স

কেএএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]