মাইক্রোসফটে চীনা হ্যাকারদের হামলায় হোয়াইট হাউসের সতর্কতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩১ পিএম, ০৬ মার্চ ২০২১

মাইক্রোসফট এক্সচেঞ্জের ইমেইল সার্ভারে হ্যাকিংয়ের ঘটনায় সতর্কতা জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। এ হামলার পেছনে চীনের হ্যাকাররা দায়ী বলে দাবি করেছে মাইক্রোসফট।

শুক্রবার হ্যাকিং প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, ‘একটি একটি সক্রিয় হুমকি। সবাই এই সার্ভার ব্যবহার করছে- সরকার, বেসরকারি খাত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান- এগুলো ঠিক করতে এখন পদক্ষেপ নিতে হবে।’

মাইক্রোসফট জানিয়েছে, হ্যাকাররা তাদের টার্গেটগুলোতে হামলা চালাতে মাইক্রোসফটের সার্ভার ব্যবহার করেছে। এই হামলার ফলে যুক্তরাষ্ট্রের ১০ হাজারে মতো প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জেন সাকি বলেন, হামলায় ক্ষতিগ্রস্তদের ব্যাপারে হোয়াইট হাউস উদ্বিগ্ন রয়েছে। তিনি আরও বলেন, মাইক্রোসফটের সার্ভারে পাওয়া দুর্বলতার ফলাফল সুদূরপ্রসারী হতে পারে।

গত মঙ্গলবার মাইক্রোসফটের নির্বাহী টম বার্ট সার্ভারের দুর্বলতার কথা জানান। এই দুর্বলতার ফলে হ্যাকাররা মাইক্রোসফট এক্সচেঞ্জে ঢোকার সুযোগ পেয়েছে বলেও জানান তিনি।

মার্কিন সরকারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এক সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের ২০ হাজারেরও বেশি প্রতিষ্ঠান এই হ্যাকিংয়ের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে চীনা সরকারের সম্পর্ক তেমন ভালো না হলেও মাইক্রোসফট এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। ১৯৯২ সাল থেকে চীনের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

ফেসবুক, টুইটার চীনে নিষিদ্ধ হলেও মাইক্রোসফটের লিঙ্কডইন চীনে নিষিদ্ধ নয়। এছাড়া চীনের স্থানীয় সার্চ ইঞ্জিন বাইডুর সঙ্গে মাইক্রোসফটের বিংও দেশটিতে অনেক জনপ্রিয়।

এমকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]