ব্রিটেন যেতে মরিয়া সেই শামীমা বোরকা ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩২ পিএম, ১৬ মার্চ ২০২১

কিশোরী বয়সে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দিয়েছিলেন। যুক্তরাজ্যের সুন্দর, গোছানো জীবন ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছিলেন সিরিয়ায়। কিন্তু সেখানে তার অভিজ্ঞতা মোটেও ভালো ছিল না। একটা সময় বুঝতে পারেন কত বড় ভুল করেছেন তিনি।

আইএসে যোগ দিয়ে নিজের জীবনের অনেক কিছুই হারিয়েছেন। আর এখন সিরিয়া থেকে যুক্তরাজ্যে ফেরার পথও বন্ধ হয়ে গেছে। বলছিলাম আইএস বধূ হিসেবে পরিচিত শামীমা বেগমের কথা।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা বেগম ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পূর্ব লন্ডনের আরও দু’জন স্কুলপড়ুয়া ছাত্রীসহ যুক্তরাজ্য ত্যাগ করে তুরস্ক হয়ে সিরিয়া চলে যান। সেখানে ইসলামিক স্টেটে যোগ দেন তিনি। তখন শামীমা বেগমের বয়স ছিল মাত্র ১৫ বছর। সেখানে নেদারল্যান্ডসের এক জিহাদিকে তিনি বিয়ে করেন। ওই যোদ্ধা অন্য ধর্ম থেকে ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন।

এরপর ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে সিরিয়ার এক শরণার্থী শিবিরে শামীমার সাক্ষাৎ পান এক ব্রিটিশ সাংবাদিক। তখন শামীমা যুক্তরাজ্যে ফিরে আসার আকুতি জানান। আইএসের সর্বশেষ ঘাঁটি বাঘুজ থেকে পালিয়ে তিনি ওই শিবিরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। সেখানেই তার ছেলে সন্তানের জন্ম হয়।

jagonews24

এদিকে বার বার আকুতি জানানো পরও ব্রিটেনে ফিরতে পারছেন না শামিমা। তাকে যুক্তরাজ্যে ফেরার সুযোগ দেয়া হবে না বলে সম্প্রতি রায় দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

অপরদিকে যুক্তরাজ্যে ফিরতে যেন মরিয়া হয়ে উঠেছেন শামীমা। সে কারণেই হয়তো নিজের পোশাকেও বদল এনছেন। তাকে সম্প্রতি বোরকা ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে দেখা গেছে। তিনি সিরিয়ার যে ক্যাম্পে আছেন সেখানকার কিছু ছবি সম্প্রতি সামনে এসেছে। সেখানেই দেখা গেছে তার পোশাক এবং চলাফেরা একেবারেই বদলে গেছে।

ফ্যাশনেবল সানগ্লাস, চুলের ভিন্ন স্টাইল আর পশ্চিমা পোশাকে তাকে যেন চেনাই যাচ্ছিল না। ব্রিটেনে ফিরে যাওয়ার যুদ্ধে তিনি নিজেকেও আগের অবস্থানে ফিরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

একটা সময় এগুলোই ছিল তার প্রতিদিনকার পোশাক। এমনকি তিনি যেদিন সিরিয়ার উদ্দেশে পালিয়ে যান সেদিনও তাকে পশ্চিমা পোশাকেই শেষবারের মতো বিমানবন্দরে দেখা গিয়েছিল।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

টিটিএন/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]