ধেয়ে আসছে বিশাল গ্রহাণু, ঠেকাতে ব্যর্থ হতে পারে পরমাণু বোমাও!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫২ পিএম, ০৪ মে ২০২১

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে দৈত্যাকার একটি গ্রহাণু। আকারে এটি এত বড় যে তা থামাতে ব্যর্থ হবে পারমাণবিক বোমাও। আর ভয়াবহ এই তাণ্ডব ঘটতে সময় বাকি মাত্র ছয় মাস। এ ধরনের দৃশ্য এতদিন সিনেমায় দেখা গেছে। কিন্তু সেটি বাস্তবে হলে বিশ্ব কী প্রতিক্রিয়া দেখাত তারই একটি সম্মিলিত প্রশিক্ষণ মহড়া চালিয়েছেন নাসাসহ বিভিন্ন সংস্থার বিজ্ঞানীরা।

মহড়ায় অংশ নেয়া যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের বিজ্ঞানীরা এমন একটি পরিস্থিতি তৈরি করেন যেন, বিশালাকার একটি গ্রহাণু সাড়ে তিন কোটি মাইল দূরে শনাক্ত করা হয়েছে। আর সেটি থামাতে উপযুক্ত পরিকল্পনা করার জন্য হাতে রয়েছে মাত্র ছয় মাস।

গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২৯ এপ্রিল- এই চারদিন মহড়ায় অংশ নেন বিজ্ঞানীরা। এসময় তারা উন্নত রাডার সিস্টেম, ডেটা ইমেজিং সিস্টেমসহ বিশ্বের সর্ববৃহৎ টেলিস্কোপ ব্যবহার করে টানা গবেষণার মাধ্যমে কল্পিত গ্রহাণুটি আঘাত হানার সম্ভাব্য সময় বের করেন।

বিজ্ঞানীরা গ্রহাণুটির নাম দেন ২০২১পিডিসি। তারা ধরে নেন, আগামী ২০ অক্টোবর পৃথিবীতে আঘাত হানতে পারে পাথরখণ্ডটি।

jagonews24

এসময় তারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, সাই-ফাই সিনেমায় দেখানো পদ্ধতিতে গ্রহাণুর বুকে আছড়ে পড়ার মতো উড়োযান তৈরি করতে ছয় মাস সময় একেবারেই যথেষ্ট নয়। আর পারমাণবিক বোমা মারলেও বিশালাকার পাথরখণ্ডটি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা কম।

ডেটা বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীরা প্রথমে জানান, গ্রহাণুটি পৃথিবীর ইউরোপ অথবা উত্তর আফ্রিকার কোনো অঞ্চলে আঘাত হানার শতভাগ আশঙ্কা রয়েছে।

পরে ধারাবাহিক গবেষণায় তারা বের করেন, কল্পিত গ্রহাণুটি জার্মানি ও অস্ট্রিয়া সীমান্তবর্তী চেক প্রজাতন্ত্রের একটি এলাকায় আছড়ে পড়বে।

প্রশিক্ষণে দেখানো হয়, ১০০ মিটার ব্যাসের গ্রহাণুটি পৃথিবীতে আঘাত হেনে চতুর্দিকে ৩০০ কিলোমিটার জুড়ে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ সৃষ্টি করে।

কেএএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]