ইসলামী সংগঠন আনসার ইন্টারন্যাশনালকে নিষিদ্ধ করল জার্মানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ০৫ মে ২০২১ | আপডেট: ০৪:১৮ পিএম, ০৫ মে ২০২১

ইসলামী সংগঠন আনসার ইন্টারন্যাশনালকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে জার্মান সরকার। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বুধবার জানিয়েছেন, সংগঠনটি সারা বিশ্বে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন করেছে। খবর রয়টার্সের।

টুইটারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হোর্স্ট সিহোফার বলেন, ‘আপনি যদি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধ লড়াই করতে চান তাহলে এর অর্থের উৎস আপনাকে বন্ধ করতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আনসার ও এর একটি অঙ্গসংগঠন ‘বৈশ্বিকভাবে সালাফি মতবাদ প্রচার করে এবং মানবিক সাহায্যের ছদ্মবেশে সারা বিশ্বে সন্ত্রাসবাসে অর্থায়ন করে।’

তিনি বলেন, জার্মানি থেকে শিশুদের আনসার ইন্টারন্যাশনালের বিদেশে প্রতিষ্ঠিত সংস্থাগুলোতে প্রেরণ করা হতো এবং সেখানে সালাফিদের চরমপন্থী বিষয়বস্তুতে দিক্ষিত করে তাদের জার্মানিতে ফিরিয়ে আনা হত।

জার্মান দৈনিক পত্রিকা বিল্ডের তথ্যমতে, সংগঠনটি নিষিদ্ধের অংশ হিসেবে বার্লিন, ব্র্যান্ডেনবুর্গ, হামবুর্গ, নর্থ রাইন-ওয়েস্টফালিয়া, লোয়ার স্যাক্সনিসহ জার্মানির ১০টি প্রদেশে পুলিশ বিভিন্ন ভবনে তল্লাশি চালিয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সন্ত্রাসবাদী কালো তালিকাভুক্ত ফিলিস্তিনি সশস্ত্র সংগঠন হামাসকে অর্থায়নের অভিযোগে পুলিশ ২০১৯ সালে আনসারের পাশাপাশি ওয়ার্ল্ডওয়াইড রেসিসট্যান্স-হেল্প নামের একটি সংগঠনে তল্লাশি চালিয়েছিল।

ডয়চে ভেলে জানায়, সংগঠনটির বিরুদ্ধে সিরিয়ার আল-নুসরা ফ্রন্ট, ফিলিস্তিনের হামাস ও সোমালিয়ার সন্ত্রাসী সংগঠন আল-শাবাবকে অর্থায়নের অভিযোগ রয়েছে।

আনসারের ওয়েবসাইটে উল্লেখ রয়েছে, যুদ্ধ ও সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য হাসপাতাল, এতিমখানা ও স্কুল ভবন নির্মানে তারা মানবিক সহায়তা প্রদান করে।

এমকে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]