মমতাকে হারানো শুভেন্দুই বিরোধীদলীয় নেতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:২৭ পিএম, ১০ মে ২০২১ | আপডেট: ০৪:৩২ পিএম, ১০ মে ২০২১

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বিরোধীদলীয় নেতা হলেন ভোটের লড়াইয়ে নন্দীগ্রাম আসনে তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জিকে হারানো শুভেন্দু অধিকারী।

জল্পনা শেষে সোমবার (১০ মে) শুভেন্দুকেই বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে ঘোষণা করল বিজেপি।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিরোধীদলীয় নেতা বাছতে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং দলের অন্যতম সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদবকে দায়িত্ব দিয়েছিল বিজেপি। এ নিয়ে সোমবার পরিষদীয় দলের বৈঠক ডাকা হয়। সেখানে দলের ৭৭ জন বিধায়ককে হাজির থাকতে বলা হয়।

সেই বৈঠকের পরে রবিশঙ্কর জানান, বিধানসভায় দলের নেতা এবং বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে নবনির্বাচিত বিধায়কদের নাম প্রস্তাব করার কথা বলা হয়েছিল। দলের বিধায়ক তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায় শুভেন্দু অধিকারীর নাম প্রস্তাব করেন। এই প্রস্তাবে আরও ২২ জন বিধায়ক সমর্থন করেন। বাকি বিধায়করা কোনো নাম প্রস্তাব করেননি। তাই শুভেন্দুকেই দলের নেতা হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

যদিও শুভেন্দুর পাশাপাশি বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে কৃষ্ণনগর উত্তরের বিধায়ক মুকুল রায়ের নামও আলোচনায় ছিল। বিজেপি নেতাদের একাংশের বক্তব্য, মুকুল দলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতির দায়িত্বে আছেন। তাকে সাংগঠনিক কাজও দেখতে হবে। তাছাড়া এই প্রথমবার বিধায়ক হলেন মুকুল। তার তুলনায় অভিজ্ঞ শুভেন্দু। বিধানসভায় থাকার পুরোনো অভিজ্ঞতা এবং নন্দীগ্রামে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে হারিয়ে ‘জায়েন্ট কিলার’ হওয়ায় তাকেই বিরোধী দলের নেতার মর্যাদা দিতে আগ্রহী ছিল বিজেপি কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

মুকুল ঘনিষ্ঠরা দাবি করেছিলেন, বিরোধী দলনেতা হওয়ার লড়াইয়েই নেই মুকুল। তিনি নিজেই অনিচ্ছার কথা দলকে জানিয়ে দিয়েছেন। সোমবার দেখা গেল, তিনিই শুভেন্দুর নাম প্রস্তাব করলেন।

এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]