ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ১৪ মে ২০২১

ভারতের দিকে ধেয়ে আসছে বছরের প্রথম ঘূর্ণিঝড়। আবর সাগর এবং লাক্ষাদ্বীপ এলাকা থেকে ধেয়ে আসছে এই ঘূর্ণিঝড়। রোববারের (১৬ মে) মধ্যে আরব সাগরে তৈরি হওয়া এই নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ের আকার নেবে বলে জানিয়েছে ভারতের আবহাওয়া অধিদফতর। এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম দেয়া হয়েছে ‘তাওকতে’ (Cyclone Tauktae)। ইতোমধ্যেই ভারতের মহারাষ্ট্র, কেরালা এবং গুজরাটে ভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতের প্রভাবে বেশ কয়েকটি জায়গায় বৃষ্টিও শুরু হয়েছে বলে দেশটির গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। শুক্রবার (১৪ মে) থেকেই লাক্ষাদ্বীপসহ কিছু এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। তাওকতের কারণে শুক্রবারই লাল সতর্কতা (রেড সিগন্যাল) জারি করা হয়েছে কেরালার পাঁচ জেলায়। আগামী রোববার বা সোমবার ভারতের দক্ষিণ উপকূলে তাওকতের আছড়ে পড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। কেরালায় শনিবার থেকে ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, কোঙ্কন উপকূলে আছড়ে পড়তে চলা তওকতের প্রভাবে মুম্বাই, গোয়া, এবং গুজরাটে বেশ প্রভাব পড়বে। গুজরাটে এই ঘূর্ণিঝড় আগামী মঙ্গলবার আঘাত হানতে পারে বলে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এমননি এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বুধবার নাগাদ রাজস্থানের দক্ষিণ-পশ্চিম এলাকায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে। আগামী ৫ থেকে ৬ দিন উপকূলবর্তী এসব রাজ্যে ঝড়ো হাওয়া বইবে। জায়গা বিশেষে এই ঝড়ের গতি ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৮০ কিলোমিটার পৌঁছতে পারে।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় ইতোমধ্যেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর (এনডিআরএফ) ৫৩টি দলকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ২৪টি দলকে ইতোমধ্যেই এলাকায় পাঠানো হয়েছে। বাকি দলগুলো স্ট্যান্ডবাই রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন। রাজ্য প্রশাসনগুলো সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

ইএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]