গাজা ইস্যুতে ‘ঘুমে’ নিরাপত্তা পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্রকে দুষলো চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:২৪ পিএম, ১৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৪:৪৮ পিএম, ১৬ মে ২০২১
চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই

ফিলিস্তিনের গাজায় চলমান ইসরায়েলি নৃশংসতার বিরুদ্ধে দ্রুত জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে চীন। এছাড়া দেশ দুটির মধ্যে চলমান বিরোধ নিরসনে নিরাপত্তা পরিষদের দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ না থাকার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই।

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়াকে তিনি বলেছেন, ‘আফসোস, নিরাপত্তা পরিষদ এখনো পর্যন্ত ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে কোনো শান্তি চুক্তিতে পৌঁছাতে পারেনি; যা অনেক আগেই করা যেত। যুক্তরাষ্ট্র বরাবরই আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচারের বিপরীতে অবস্থান নিয়েছে।’

এদিকে, গত এক সপ্তাহে ফিলিস্তিনের নিরপরাধ মানুষের ওপর একের পর এক হামলা চালিয়ে যাচ্ছে দখলদার ইসরায়েল। রোববার (১৬ মে) সকালেও ইসরায়েলি হামলায় কমপক্ষে ২৬ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত প্রায় ৫০ জন। ইসরায়েলি হামলায় কমপক্ষে দুটি আবাসিক ভবন ধসে পড়েছে।

হামাসের আল আকসা টেলিভিশনের এক খবরে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, গাজার হামাস প্রধান ইয়াহইয়া আল সিনওয়ারের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। ইয়াহইয়া আল সিনওয়ার ২০১৭ সাল থেকে গাজায় হামাসের রাজনৈতিক ও সামরিক শাখার নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তবে হামলায় এই নেতার কোনো ক্ষতি হয়েছে কি-না বা তিনি হামলার সময় বাড়িতে অবস্থান করছিলেন কি-না তা নিশ্চিত করা হয়নি।

গত এক সপ্তাহে গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি হামলায় ১৭০ জনের বেশি ফিলিস্তিনির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৪১ জনই শিশু। অপরদিকে আহত হয়েছেন এক হাজারের বেশি মানুষ। আর পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে কমপক্ষে ১৩ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

অন্যদিকে, পাল্টা হামলায় এখন পর্যন্ত ইসরায়েলে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার নতুন করে দুই ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন।

এদিকে শনিবার রাতে টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু জানিয়েছেন, যতক্ষণ প্রয়োজন গাজায় হামলা অব্যাহত থাকবে। অপরদিকে হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া জানিয়েছেন, পাল্টা জবাব দেয়া হবে।

এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]