ভারতে একমাসে ১৩ বার জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:০৯ এএম, ২৭ মে ২০২১

ভারতে ফের এক দফায় বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম। এ নিয়ে দেশটিতে চলতি মাসে ১৩ বারের মতো তেলের দাম বৃদ্ধি পেল।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় ২৩ পয়সা বেড়ে পেট্রলের দাম হয়েছে লিটার প্রতি ৯৩ টাকা ৭২ পয়সা। আর লিটারে ৩০ পয়সা বেড়ে ডিজেলের নতুন দাম হয়েছে ৮৭ টাকা ৪৬ পয়সা।

দিল্লিতে পেট্রলের দাম ২৪ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৯৩.৬৮ টাকা। ডিজেলের দাম ২৯ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৮৪.৬১ টাকা।

মুম্বাইয়ে ২৩ পয়সা বেড়ে পেট্রল হয়েছে ৯৯.৯৪ টাকা। আর ছয় পয়সা বাড়লেই তা ১০০ হবে। ডিজেলের দাম ৩০ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৯১.৮৭ টাকা।

চেন্নাইয়ে ২২ পয়সা বেড়ে ৯৫.২৮ টাকা দাম হয়েছে পেট্রলের। আর ডিজেল ২৮ পয়সা বেড়ে হয়েছে ৮৯.৩৯ টাকা।

এর আগে গতকালই (২৬ মে) কলকাতায় ২২ পয়সা বেড়ে পেট্রলের দাম হয়েছিল ৯৩.৪৯ টাকা। ডিজেলের দাম লিটারে ২৫ পয়সা বেড়ে হয়েছিল ৮৭.১৬ টাকা।

তার আগে গত ২৩ মে বেড়েছিল জ্বালানির দাম। ওইদিন কলকাতায় পেট্রলের দাম লিটার প্রতি ১৬ পয়সা বেড়ে হয়েছিল ৯৩.২৭ টাকা। ডিজেলের দাম লিটার প্রতি ২৭ পয়সা বেড়ে হয়েছিল ৮৬.৯১ টাকা।

এভাবে কেবল মে মাসেই ১৩ বার ভারতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি হয়েছে। নয়া দিল্লির হিসেবে এ মাসে পেট্রল ও ডিজেলের এখনো পর্যন্ত যথাক্রমে ৩.৫০ ও ৪.৫৯ শতাংশ দাম বেড়েছে।

প্রসঙ্গত, ভারতে পেট্রল-ডিজেলের দাম চার ধাপে ঠিক করা হয়। প্রথমতঃ শোধনাগার, এখানে পেট্রল, ডিজেল এবং অন্যান্য পেট্রলজাত অপরিশোধিত তেল কেনা হয়। দ্বিতীয়তঃ তেল সংস্থা, তারা তাদের লাভ রেখে এবং পেট্রল পাম্পে তেল সরবরাহ করে। তৃতীয়তঃ এখানে পেট্রল পাম্প মালিকরা তাদের নির্দিষ্ট কমিশন পেয়ে থাকেন। চতুর্থতঃ কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের চাপানো আবগারি শুল্ক এবং ভ্যাট প্রদানের মাধ্যমে সাধারণ জনগণ সেই তেল কেনেন।

সূত্র : দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]